সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কাহারোলে বিমাতা ভাই কর্তৃক জীবননাশের হুমকি । নিরাপত্তা চেয়ে আদালতে মামলা

দিনাজপুর প্রতিনিধি : কাহারোলে বিমাতা ভাই ও তাদের সহযোগি কর্তৃক জীবননাশের হুমকি থেকে বাঁচতে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে আদালতে মামলা করেছেন কাহারোল উপজেলার মুকন্দপুর গ্রামের মৃত হুসেন আলীর ছেলে মজু মিয়া (৬০)।

জেলা দিনাজপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে (কাহারোল) দায়ের করা মামলা সূত্রে জানা গেছে, জমি নিয়ে পূর্ব শক্রতার জের ধরে গত ৩০ জুন সকাল আনুমানিক ৮টায় নিজ বাড়ীর খুলিয়ানে মজু মিয়াকে একাকী পেয়ে তারই বিমাতা ৩ ভাই মৃত হুসেন আলীর ছেলে মোঃ আনিসুর (৩১), মোঃ আবুল (৩৫) ও মোঃ সামাদ এবং তাদের সহযোগি একই গ্রামের নজরুল’র ছেলে মোঃ মালেক মজু মিয়াকে মারার জন্য উদ্যত হয়। তাদের কু-মতলব বুঝতে পেরে মজু মিয়া জীবনের ভয়ে চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে তারা পালিয়ে যায়। যাওয়ার সময় তারা এই বলে হুমকি দিয়ে যায় যে, ‘আজ না হয় বেঁচে গেলে। এর পর তোকে ও তোর পরিবারের সদস্যদের একাকী যেখানেই পাব সেখানেই মেরে লাশ মাটিতে পুতে রাখবো।’ তারা আরো হুমকি দেয় যে, ‘রাতের অন্ধকারে তুলে নিয়ে গুম করবে এবং শহরের গুন্ড-মাস্তান দিয়ে রাস্তা-ঘাটে আটক করে হাত-পা ভেঙ্গে পঙ্গু করে দিবে, তার জমি দখল করে তাকে ভিটা ছাড়া করা হবে। সুযোগ মত হেরোইন, গাঁজা, ফেনসিডিল, অবৈধ অস্ত্র ও ভারতীয় মালামাল বাড়ীতে ঢুকিয়ে দিয়ে মজু মিয়া ও তার পরিবারের সদস্যদের পুলিশ বা বিজিবির হাতে ধরিয়ে দিবে। খারাপ মহিলা দিয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে আটক করিয়ে জেলের ঘানি টানাবে। বাড়ী-ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিবে।’

মামলায় মজু মিয়া জানান, তার প্রতিপক্ষ বিমাতা ভাইয়েরা অত্যন্ত দুর্দান্ত প্রকৃতির, দাঙ্গাবাজ, লাঠিয়াল, খুনি ও চাঁদাবাজ লোক। তাদের হুমকিতে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা রাস্তা-ঘাটে ও হাট-বাজারে চলাফেরা করতে পারছেন না। যে কোন সময় তাদের হাতে খুন বা জখম হওয়ার আশঙ্কা করছেন তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা। তাই তার প্রতিপক্ষ উল্লেখিত লোকদের ফৌজদারী দন্ড বিধির ১০৭ ধারা মতে প্রসেডিং ড্রন আপ করে ১১৪ ধারা মতে গ্রেফতার পরোয়ানা জারি অন্তে ধৃত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানিয়েছেন।