সোমবার ১৪ জুন ২০২১ ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কিংবদন্তি অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদির ৬৯তম জন্মদিন আজ

কিংবদন্তি অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদির ৬৯তম জন্মদিন আজ (২৯ মে)। ১৯৫২ সালের এই দিনে ঢাকার নারিন্দায় জন্ম নেন তিনি। তিনি অসংখ্য জনপ্রিয় মঞ্চ, টিভি নাটক ও চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শিল্প-সংস্কৃতিপ্রেমীদের হৃদয়ে আসন গেড়ে নেন। অভিনয় দিয়ে অগণিত মানুষকে মুগ্ধ করেছেন হুমায়ুন ফরীদি। তার জীবনবোধও সবাইকে নাড়া দিয়েছে বারবার। বিশেষ করে বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে জীবন, মৃত্যু, প্রেম নিয়ে এই অভিনেতার কথাগুলো স্মরণীয় হয়ে রয়েছে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতি বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী ফরীদি বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে বিশিষ্ট নাট্যকার সেলিম আল-দীনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ ছিলেন। ১৯৭৬ সালে নাট্যজন সেলিম আল দীন-এর উদ্যোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হয় নাট্যোৎসব। ফরীদি ছিলেন এর অন্যতম প্রধান সংগঠক। এই উৎসবে ফরিদীর নিজের রচনায় এবং নির্দেশনায় মঞস্থ হয় ‘আত্মস্থ ও হিরন্ময়ীদের বৃত্তান্ত’ নামে একটি নাটক। ওই সময় নাটকটি সেরা হিসেবে বিবেচিত হয়েছিল।

মৃত্যুকে ব্যাখ্যা করতে গিয়ে হুমায়ুন ফরীদি বলেছেন, ‘মৃত্যুর মতো এতো স্নিগ্ধ, এতো গভীর সুন্দর আর কিছু নেই। কারণ মৃত্যু অনীবার্য, তুমি যখন জন্মেছো তখন মরতেই হবে। মৃত্যুর বিষয়টি মাথায় থাকলে কেউ পাপ করবে না। যেটা অনীবার্য তাকে ভালোবাসাটা শ্রেয়।’ হুমায়ুন ফরীদির সঙ্গে বাবা-ছেলের সম্পর্ক ছিল সংগীতশিল্পী প্রীতম আহমেদের। অভিনেতার ৬০তম জন্মদিন পালন প্রসঙ্গে এক স্মৃতি শেয়ার করেন।

তিনি বলেন, ‘পরিচালক আশরাফুল আলম রিপন, ছড়াকার আহসান কবির ও অভিনেতা পাভেল ভাই ৬০তম জন্মদিনের প্রস্তাব নিয়ে আমার বাসায় এসেছিলেন। জানালেন বাবার (হুমায়ুন ফরীদি) ৬০তম জন্মদিন বড় করে পালন করতে চান। তারা বলতে গেলে প্রথমেই যদি না করে দেয় আর রাজি করানো যাবে না। তাই সেই দায়িত্ব দিলেন আমাকে।’

প্রীতম আরও বলেন, ‘আমি বাবাকে ফোন দিয়ে বেশ গুছিয়ে প্রস্তাব দিলাম। তিনি সরাসরি বলে দিলেন, ঘোষণা করে জন্মদিন পালন করার মতো বড় কিছু হই নাই। শুরুতে রাজি ছিলেন না তিনি। সেই অনুষ্ঠানে আমি থাকতে পারিনি কিন্তু আজও দেশের পক্ষ থেকে মানুষটাকে দেওয়া আনুষ্ঠানিক সম্মান একটাই। সেই আয়োজনে হুমায়ূন ফরীদির প্রতি অসাধারণ ভালোবাসা প্রদর্শন করেছিলেন উপস্থিত সবাই।’

নব্বই দশকে এসে নাম লিখিয়েছিলেন ‘বাণিজ্যিক ধারার বাংলা চলচ্চিত্রে। ‘হুলিয়া’ দিয়ে প্রথম সিনেমাতে অভিনয়। ফরিদী অভিনয়ে এতোটাই অনবদ্য ছিলেন যে একসময় নায়কের চেয়ে বাংলা সিনেমাপ্রেমী জাতির কাছে ভিলেন হুমায়ূন ফরীদি বেশি প্রিয় হয়ে ওঠেন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email