রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কিশোর বয়সে সংসারের ঘানি রাববীর কাধে!

মোঃ শামসুল আলম বোচাগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : যে বয়সে কিশোর রাববীর বই কাধে নিয়ে স্কুলে যাওয়ার কথা, বন্ধুদের সাথে খেলায় মেতে থাকার কথা, ঠিক সেই বয়সে সব কিছু ত্যাগ করে মাত্র ১২ বছর বয়সেই সংসারের হাল ধরতে হয়েছে তাকে। বলা যায় কিশোর রাববীর কাধেই এখন সংসারের ঘানি।

বোচাগঞ্জ উপজেলার সেতাবগঞ্জ পৌর শহরের রেলকোলনী পাড়ার শাহ আলমের ২য় পুত্র রাববী। তিন ভাই, দুই বোন ও পিতা-মাতাসহ ৭ সদস্যের বড় পরিবার তাদের। মা নুর নাহার তার ছেলে রাববীকে লেখা পড়া শিখে মানুষের মত মানুষ করতে ব্র্যাক স্কুলে ভর্তি করে দেয়। সেখানে সে চতুর্থ শ্রেণী পর্যন্ত লেখাপড়া করার সময় তার পিতা শাহ আলম সন্তান ও স্ত্রী নুর নাহারকে ঠিকমত দেখাশুনা করতো না। ঠিকমত দুবেলা দুমুঠো ভাত কাপড় দিতে পারতো না। পিতার বিভিন্ন অনৈতিক কাজ ছেলে হিসেবে রাববীকে পীড়া দিত।

এ অবস্থায় অল্প বয়সেই সে সংসারের হাল ধরতে সিদ্ধান্ত নেয়। এখন সে লেখাপড়া বাদ দিয়ে ভ্যানে করে শহরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে সাত মিশালী সহ চানা, বিস্কুট এবং রকমারী খাবার বিক্রি করে তার পরিবারের দু-বেলা অন্ন জুটাচ্ছে।

এ বিষয়ে কিশোর রাববীর সাথে কথা হলে সে জানায়, লেখাপড়া করতে তার মন চায় কিন্তু সংসারের অভাব মোচনে তাকে এ বয়সেই সংসারের হাল ধরতে হয়েছে। উলে­খ্য যে, মাদক সেবী পিতার দায়িত্ব হীনতার কারণে আমাদের সমাজে লেখা পড়া বাদ দিয়ে অসংখ্য কিশোর সংসারের ঘানি টানছে। রাববী তাদেরই একজন।

 

Spread the love