সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কৃষকের ঈদ আনন্দে

03. krishoker eid  (1)নদীমাতৃক বাংলাদেশের জীবন ও সংস্কৃতির সঙ্গে নদীর যে সম্পর্ক সে সম্পর্ক আর কোন কিছুর নেই। নদীই কৃষি, নদীই আবাসন, নদীই যোগাযোগ, নদী মানুষের ভালোমন্দের সঙ্গে যুক্ত এক গভীর সূত্র। এ বিষয়টিকে মাথায় রেখেই ঈদে দর্শকদের সবচেয়ে সাড়া জাগানো অনুষ্ঠান চ্যানেল আই-এর কৃষকের ঈদ আনন্দের ধারণপর্ব সম্পন্ন হয় একেকটি নদীপাড়ে। এবারও কৃষকের ঈদ আনন্দ ধারণ করা হয়েছে পদ্মাপাড়ে। রাজবাড়ি জেলা সদরের উড়াকান্দিতে। উড়াকান্দি এক প্রাচীন নৌ-যোগাযোগের কেন্দ্র। দূর সেখানে দূরান্ত থেকে জাহাজ স্টিমার ভিড়তো একসময়। পদ্মা ভাঙতে ভাঙতে সেসব ঘাটের আর অস্তিত্ব নেই। একেবারে ভাঙনের মুখে থাকা একটি চরে এবারের আয়োজন।

বিশ্বকাপ উত্তাপকে স্মৃতিতে রেখে এবার কৃষকের ঈদ আনন্দে রাখা হয়েছে বিশ্বকাপ ও ফুটল বিষয়ক একটি প্রতিযোগিতা ‘মাস্ক পিকে’। নতুন প্রতিযোগিতার মধ্যে রয়েছে কৃষাণীদের ‘কলসী কাঁখে বধু যায়, কার কলসি কে বাঁচায়’, ও কৃষকদের হাটে হাড়ি ভাঙা খেলা। দারম্নণ চিত্তাকর্ষক খেলা। এবার ব্যতিক্রম ছিল কলাগাছে ওঠা প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রেও। প্রতিবার হয় তৈলাক্ত কলাগাছ বেয়ে ওঠা প্রতিযোগিতা, এবারের ব্যতিক্রম তৈলাক্ত গায়ে কলাগাছ বেয়ে ওঠা। যা আকর্ষণ বাড়িয়েছে অনেক বেশি। এবারের অনেকটা দুঃসাধ্য এই প্রতিযোগিতায় তৈলাক্ত গায়ে কলাগাছে উঠে একুশ ইঞ্চি টেলিভিশন জিতে নিয়েছে এলাকার দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী এক যুবক। চ্যানেল আই-এর পক্ষ থেকে তার চোখের উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা নেবার ঘোষণা দিয়েছেন কৃষকের ঈদ আনন্দ-এর পরিকল্পক, উপস্থাপক ও পরিচালক শাইখ সিরাজ।

কৃষকের ঈদ আনন্দে অন্যান্য আয়োজনের মধ্যে ছিল বাস্কেটে ভেজিটেবল, ঝুলে ঝুলে বাঁশ পার, বালিশ লড়াইয়ের মতো আকর্ষণীয় প্রতিযোগিতা।

কৃষকের ঈদ আনন্দের প্রতিযোগিতাগুলোর ভেতরে ভেতরে এবারও থাকছে ঐতিহ্য, স্মৃতি ও প্রসিদ্ধ বিষয় নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র। কৃষকের ঈদ আনন্দ চ্যানেল আইতে প্রচারত হবে ঈদুল ফিতরের দ্বিতীয় দিন বিকেল সাড়ে ৪টায়।