শুক্রবার ২০ মে ২০২২ ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কোন দলের কাছে নয় পুলিশকে জাতির কাছে সততার পরীক্ষা দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

pmপুলিশ বাহিনীকে সতর্ক করে প্রধানমন্ত্রী

শেখ

হাসিনা বলেছেন, কোন দলের কাছে নয়

পুলিশকে জাতির কাছে সততার পরীক্ষা দিতে

হবে । কারণ দেশের মানুষ পুলিশকে ভরসার স্থল

হিসেবে দেখতে চায়। জঙ্গী ও সন্ত্রাসীদের সঙ্গে হাত

মেলালে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া

হবে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর

রাজারবাগ পুলিশ লাইনে ‘পুলিশ সপ্তাহ’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এসব

কথা বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী ৪ ক্যাটাগরিতে পুলিশ

সদস্যদের হাতে ‘পুলিশ পদক ২০১৩’ তুলে দেন।

পুলিশ বাহিনীর সফলতার কথা উল্লেখ করে

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের সীমানা পেরিয়ে পুলিশ

সদস্যরা বিদেশেও সম্মান কুড়িয়েছেন। নারী

পুলিশ সদস্যরাও অবদান রাখছেন। তিনি বলেন,

পুলিশ বাহিনীর উন্নয়নে বহুমুখী পদক্ষেপ নেয়া

হয়েছে। তাদের জন্য ৩০ ভাগ ঝুঁকিভাতা

বাড়ানো হয়েছে। জনবল বৃদ্ধি করা হচ্ছে। সার্বিক

সক্ষমতা বাড়াতে আধুনিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা

করা হচ্ছে। সাইবার ক্রাইমসহ সকল অপরাধ

শনাক্ত করতে আধুনিক যন্ত্রপাতি সংযোজন করা

হয়েছে। থানা সংস্কারের কাজ চলছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি ও জামায়াত-শিবির

প্রতিনিয়ত চক্রান্ত করে যাচ্ছে। তাদের নৈরাজ্য

সত্ত্বেও বাংলাদেশের কাঙ্ক্ষিত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি

হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, দেশি-বিদেশি চক্র

বাংলাদেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে তৎপর

রয়েছে। অভ্যন্তরীণ শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষা করা, সন্ত্রাস

ও অপরাধ দমন, আর্থসামাজিক স্থিতিশীলতা

বজায় রাখা এবং গণতন্ত্র ও মানবাধিকার রক্ষার

মাধ্যমে সরকারের রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নে

বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা নিরলসভাবে

কাজ করে যাচ্ছেন। ২০৪১ সালের মধ্যে

বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে

চাই। এজন্য প্রয়োজন শান্তিপূর্ণ পরিবেশ। এক্ষেত্রে

পুলিশ ও জনগণের সহায়তা দরকার।

সাম্প্রদায়িকতা মুক্ত দেশ গড়তে সবাইকে এগিয়ে

আসার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, একটি

চক্র দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে তৎপর

রয়েছে। তাদের নৈরাজ্য সত্ত্বেও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি

হয়েছে।

 

 

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email