রবিবার ২৬ জুন ২০২২ ১২ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

গাজায় চলছে মুসলিম গণহত্যা। তৃতীয় দিনে নিহত ২০

02. palestinian-israel-conflict-attackগাজায় ইসরাইলের সামরিক বাহিনীর অভিযানের তৃতীয়  দিনে নারী ও শিশুসহ ২০ জন নিহত হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ইসরাইলি বিমান হামলায় নিহতদের মধ্যে চারজন নারী ও চারটি শিশু। হাসপাতাল সূত্র একথা জানায়।

গাজা উপত্যকা থেকে হামাস জঙ্গিদের রকেট হামলা বন্ধে গত মঙ্গলবার শুরম্ন করা অপারেশন প্রটেকটিভ এজ নামের ইসরাইলি সামরিক অভিযানে এ নিয়ে নিহত ফিলিস্থিনি নাগরিকদের মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭০ জনে দাঁড়ালো।

ইসরাইলের সামরিক বাহিনী জানায়, তারা রাতে হামাসের তিন শতাধিক অবস্থান লক্ষ্য করে হামলা চালায়।

এদিকে এ অভিযান শুরম্নর পর থেকে ইসলামি জঙ্গি গ্রম্নপের সাড়ে ৭শ’ অবস্থান লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়েছে বলে ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

জরম্নরি সেবা কেন্দ্রের মুখপাত্র আশরাফ আল-কুদ্রা এএফপিকে বলেন, খান ইউনিস নগরীর একটি কপিশপে সকালের বিমান হামলায আটজন নিহত ও কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়।

তিনি আরো জানান, গাজার মধ্যাঞ্চলের নুসিরাত শরণার্থী শিবিরের একটি বাড়িতে দ্বিতীয় হামলায় এক ব্যক্তি নিহত ও অনেক আহত হয়।

তিনি জানান খান ইউনিস শহরের দু’টি বাড়ি লক্ষ্য করে আবারো চালানো হামলায় চার নারী ও চার শিশু নিহত হয়।

এছাড়া গাগজা সিটির পশ্চিমাঞ্চলে একটি গাড়িতে হামলায় তিনজন নিহত ও অপর চারজন আহত হয়।

উল্লেখ্য, গাজার হামাস জঙ্গিদের বিরম্নদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু’র হুঁশিয়ারির পর থেকেই ফিলিস্থিনি ভূ-খন্ডে প্রায় সারা রাত ব্যাপক বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যা’’’ছ।

২০১২ সালের পর থেকে গাজার বিরম্নদ্ধে ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর এটি হ’’’ছ সবচেয়ে বড় অভিযান।

ইসরাইলের সামরিক বাহিনীর বুধবারের অভিযানে ২৯, মঙ্গলবারের অভিযানে ২১ ফিলিস্থিনি নাগরিক নিহত হওয়ায় এ নিয়ে মোট ৭০ জন নিহত হলো।

হাসপাতালের প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এএফপি’র খবরে বলা হয়, এসব নিহতের মধ্যে ১১ জন নারী ও ১৮ শিশু।

 

 

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email