রবিবার ২ অক্টোবর ২০২২ ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

গার্সিয়া মার্কেজ আর নেই

2-Photoকলম্বিয়ার নোবেল জয়ী ঔপন্যাসিক গ্যাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেজ (৮৭) আর নেই। ফুসফুস ও মূত্রনালীতে সংক্রমণের কারণে গত বৃহস্পতিবার তিনি মারা যান। এ সময়ে তার পাশে ছিলেন স্ত্রী মার্সিডেস এবং ছেলে রড্রিগো ও গঞ্জালো। তার পরিবার সূত্রে এ কথা জানা গেছে। এর আগে মার্চের শেষের দিকে সংক্রমণের কারণে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নয়দিন চিকিৎসা শেষে মেঙিকো সিটির বাড়িতে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই তার চিকিৎসা চলছিল। তবে সোমবার মার্কেজের পরিবারের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছিল,তার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি অত্যন্ত নাজুক। কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট জুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোস তার টুইটার বার্তায় স্প্যানিশ ভাষার তুমূল জনপ্রিয় মার্কেজকে কলম্বিয়ার সর্বকালের সেরা হিসেবে উল্লেখ করেন এবং তিনদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেন, মার্কেজের মৃত্যুতে বিশ্ব একজন মহান স্বাপ্নিক লেখককে হারালো। গাবো নামে পরিচিত মার্কেজ ১৯২৭ সালের ৬ মার্চ কলম্বিয়ায় জন্ম নেন। ১৯৬১ সালে তিনি মেঙিকোতে আসেন এবং এখানে তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে বসবাস করেন। মার্কেজ যখন মেঙিকো আসেন তখন তার না ছিল খ্যাতি না ছিল অর্থ। প্রচন্ড আর্থিক কষ্টের মধ্যে তার দিন চলছিল। ১৯৬৭ সালে তার বিখ্যাত উপন্যাস ‘ওয়ান হানড্রেড ইয়ার্স অব সলিটিউড’ প্রকাশের পর এটি বিশ্বে সাড়া ফেলে দেয়। বিশ্বের ৩৫টি ভাষায় এটি অনুদিত হয়। বিক্রি হয় তিন কোটি কপি। সাহিত্যে যাদু বাস্তবতার সার্থক প্রয়োগের জন্য খ্যাত মার্কেজ উপন্যাস ও ছোটগল্পের জন্য ১৯৮২ সালে নোবেল পুরস্কার পান। পুরস্কার প্রদানকালে নোবেল কমিটি তার সাহিত্য কর্মকে উল্লেখ করে এভাবে, ‘মার্কেজের সাহিত্যে স্বপ্ন আর বাস্তবতার অসাধারণ মিশেল রয়েছে যা জীবনের শুদ্ধতা ও সংঘাতকে তুলে ধরে।’তার উল্লেখযোগ্য অন্যান্য উপন্যাস ‘ক্রনিক্যাল অব এ ডেথ ফোরটোল্ড’, ‘দ্য জেনারেল ইন হিজ ল্যাবিরিন্থ’। এছাড়া রয়েছে তার আত্মজীবনী ‘লিভিং টু টেল দ্য টেল’। তার শেষ উপন্যাস ‘মেমরিজ অব মাই ম্যালাঙ্কুলিক ওর্স’ ২০০৪ সালে প্রকাশিত হয়।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email