বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঘোড়াঘাটে আমন ক্ষেতে ইঁদুরের আক্রমনে কৃষক দিশেহারা

মোঃ আজহারুল ইসলাম সাথী, ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর)ঃ

দিনাজপুর ঘোড়াঘাটে আমন ক্ষেতে ইঁদুর ও সুচার আক্রমন কৃষক দিশেহারা হয়ে পরেছেন। ক্ষেতের ধান কেটে সাবাড় করছে, বিষ টোব, আগুনের কুন্ড জালিয়ে, ফটকা ফুটিয়ে, ক্যাছেটের ফিতা, পলিথিন ব্যাক পুরাতুন জামা কাপর কাঠির মাথায় বাধিয়ে কলার গাছ, জমিতে পুতিয়ে দিয়েও কৃষকেরা তাদের ফসল ইঁদুর সুচার হাত থেকে  রক্ষা করতে পারছেনা। ফলেই কৃষক দের মাথায় বাজ পরেছে। আর বুজি শেষ রক্ষা হয় না। সরেজমিতে উপজেলার বিভিন্ন মাঠ ঘুরে দেখা গেছে প্রায় মাঠের জমিতে ধান ক্ষেতে ইঁদুর ও সুচারের উৎপাদ বেড়ে গেছে। কৃষক তাদের ধান ক্ষেতের আলো ফাঁদ বসে দিন কাটাচ্ছে আর রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে। কখন ধানের গাছের গোড়া কেটে দিচ্ছে তা বুঝতে পারছে না কৃষকেরা। মাঠ থেকে বাড়ি আসলে ফিড়ে যাওয়ার পর ধানের জমিতে পাওয়া যাচ্ছে বোঝায় বোঝায় কাটা ধান গাছ। কৃষকেরা জানান পোকার বা অন্য কোন বালায় আক্রমন হলে ওষুধ দিয়ে রক্ষা পাওয়া যায়। কিন্তু ইঁদুর ধরলে একেবাড়ে শেষ করে ফেলেছে। আগের দিনে ইদুর ধরতো তার ব্যাপকতা এত বেশি ছিলনা। দিনের বেলা গর্থে বা বোন জঙ্গেলে থাকে রাতের বেলা ধানের জমিতে  ধান গাছ কেটে সাবার করছে। চলিত আমন আবাদে এক দিকে খরা, অন্য দিকে পোকার আক্রমন। শেষ বাড়ে ইঁদুর আক্রমন দুরচিন্তায় কৃষকেরা। কৃষকেরা এবার আমন ফসল করেছে কিন্তু যে ভাবে ইঁদুর আক্রমন করেছে তাতে করে ফসল রক্ষা করা কঠিন হয়ে পরেছে। এবার নতুন করে যোগ হয়েছে সুচারু নামক এক ধরনের গুই সাপের মতো দেখতে, এটাকে কেউ বলছে সুচা, কেউ বলছে রক্ত চোষা। জমির ফসল রক্ষায় কৃষকরা বিষ টোব, আগুনের কুন্ড জালিয়ে, ফটকা ফুটিয়ে, ক্যাছেটের ফিতা, পলিথিন ব্যাক পুরাতুন জামা কাপর কাঠির মাথায় বাধিয়ে কলার গাছ, জমিতে পুতিয়ে দিয়েও কৃষকেরা তাদের ফসল ইদুর সুচার হত থেকে  রক্ষা করতে পারছেনা কৃষকরা।

Spread the love