মঙ্গলবার ৪ অক্টোবর ২০২২ ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঘোড়াঘাটে ৪টি ককটেলসহ ২ শিবির নেতা গ্রেফতারের ঘটনায় বিএনপি-জামায়াতের ১৫১জনের বিরুদ্ধে মামলা

দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদের পরিচিতি সভা শেষে ৪টি ককটলেসহ শিবির নেতা গ্রেফতারের ঘটনায় নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ মোঃ শামীম হোসেন চৌধুরী সহ বিএনপি-জামায়াত ও শিবিরের ১৫১জনের বিরুদ্ধে ১৯০৮ সালের (সংশোধনী) ২০০২ এর বিস্ফোরক আইনে ৪/৬ ধারায় মামলা করা হয়েছে। বুধবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার তবিবুর রহমান নব নির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদের এক পরিচিতি সভা আহবান করেন। সভায় ৪টি ইউনিয়নের ৪জন ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দকে আমন্ত্রন করা হয়। অজ্ঞাত কারনে ৪টি ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যানরা পরিচিতি সভায় উপস্থিত হননি। নির্বাহী অফিসার তবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ হলরুমে সকাল ১০টায় বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের নিয়ে পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদের অফিসের কক্ষ পরিদর্শন করানো হয়। উপজেলা পরিষদ দখলে নিতে জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীরা উপজেলা পরিষদের পশ্চিমে এক চাতালে স্বশস্ত্র অবস্থায় সমবেত হয়। আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীরা জানতে পারলে ঘোড়াঘাট থানার ওসি ফরহাদ ইমরুল কায়েসে নেতৃত্বে উপজেলা পরিষদে অবস্থানরত পুলিশ বিএনপি ও জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের ধাওয়া করে। অবস্থার বেগতিক দেখে তারা ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় ছাত্রলীগ কর্মীরা দুই শিবির কর্মী ও এক জিয়া শিশু কিশোর সংগঠনের নেতাকে ৪টি কক্টেল সহ আটক করে উপজেলা পরিষদে অবস্থান রত পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় ঘোড়াঘাট থানার সাব-ইন্সপেক্টর কল্যাণ চন্দ্র বাদী হয়ে উপজেলা চেয়ারম্যানকে হুকুমের আসামী করে ১৫১জনের বিরুদ্ধে একটি বিস্ফোরক আইনে মামলা রুজু করেন। অপরদিকে নব নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান উপজেলা জামায়াতের আমীর আলমগীর হোসেনকে এ মামলায় আসামী করা হয়নি। তবে বিএনপির কিছু নেতা এ মামলায় আসামী হয়ে রয়েছে। এ মামলায় ৩জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। যার মামলা নং- ৮ তারিখ- ০৯/০৪/১৪ইং।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email