মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঘোড়াঘাট পৌর আওয়ামীলীগ নেতার উপর হামলাকারীদের গ্রেফতার দাবী

দিনাজপুর প্রতিনিধি : বিএনপি-জামাত-শিবির জোটের সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়ে পঙ্গুত্ব বরণ করতে যাওয়া ঘোড়াঘাট পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান ভুট্টু আসামীদের গ্রেফতার, দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি ও প্রধানমন্ত্রীর নিকট  আর্থিক  ও চিকিৎসা সহায়তার মাধ্যমে পঙ্গুত্বের হাত থেকে রক্ষার জন্য সংবাদ সম্মেলন করেছে।

গতকাল সকাল সাড়ে ১১টায় দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঘোড়াঘাট উপজেলা শাখার সাবেক সভাপতি ও ঘোড়াঘাট পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক মোঃ আসাদুজ্জামান ভুট্টু লিখিত বক্তব্যে জানান, গত ২ ডিসেম্বর ২০১৩ ১৮ দলীয় জোটের ডাকা হরতাল কর্মসূচী প্রতিরোধ করতে গিয়ে বিএনপি জামাত শিবিরের স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী মোবারক হোসেন খোকন, মনু মিয়া, বাবলু মিয়া, আসাদুল, মুন্না, মমিন, মোঃ ইমরানসহ ১০/১৫ জনের স্বশস্ত্র বাহিনী তার উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে বিভিন্ন ধারালো অস্ত্র দ্বারা এলোপাথারী কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে, এ সময় ভুট্টুর সঙ্গে থাকা ঘোড়াঘাট পৌর ছাত্রলীগের আহবায়ক মঞ্জুরুল হক, পৌর ছাত্রলীগ শাখার যুগ্ম আহবায়ক আশরাফুল ইসলাম ও ঘোড়াঘাট ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ফিরোজ কবিরকেও এলোপাথারী কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।

এরপর আহতদের  ওই দিনে স্থানীয় ঘোড়াঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করালে সেখান থেকে ডাক্তাররা আসাদুজ্জামান ভুট্টুকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে, এম্বুল্যান্স যোগে তাকে রংপুর নেওয়ার পথে গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী থানার শিমুলতলী নামক স্থানে আহত আসাদুজ্জামান ভুট্টুকে পুনরায় নামিয়ে ওই সকল আসামীরা মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য নির্দয়ভাবে  কোপাতে থাকে, সঙ্গে থাকা লোকজনের  আত্ম চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে আসামীরা তাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। ঘটনার পর সেখান থেকে মোবাইল যোগে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ তৈয়বুর রহমান ও থানার ভারপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা ইমরুল কায়েস এর সহযোগিতা চাইলে তাদের মাধ্যমে পলাশবাড়ী থানার পুলিশ ভুট্টুকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেলে যেতে সহযোগীতা করে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় ওই দিনে ভুট্টুর ভাই  মোঃ আবুল বাশার বাদী হয়ে ঘোড়াঘাট থানায় ১০ জনের নামসহ ৪০/৫০ জন অজ্ঞাত নামা আসামী বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। মামলা নং-০১/২১৪, তারিখ- ২/১২/২০১৩ ইং। মামলার পর ভিক্টিম আসাদুজ্জামান ভুট্টু ১৬৪ ধারায় ম্যাজিষ্ট্রেট এর নিকট তার উপর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে জবানবন্দী প্রদান করে।

পুলিশ এই মামলার দুজন আসামীকে গ্রেফতার করলেও পরবর্তীতে তারা জামিনে মুক্তি পেয়ে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য জীবন নাশের হুমকি দিচ্ছে। আসাদুজ্জামান ভুট্টু সাংবাদিকদের জানান, সরকার দলীয় কর্মী হওয়ার পরেও বিরোধী দলের কর্মকান্ডে প্রতিরোধ করতে গিয়ে ঘোড়াঘাট বিএনপি জামাত শিবিরের সন্ত্রাসীদের দ্বারা চরমভাবে নির্যাতিত হয়েছি। এদের বিরুদ্ধে কঠোরভাবে কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় আজ আমার ও আমার পরিবারের জীবন হুমকি মুখে।

আমি মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নিকট আবেদন করছি, আমাকে যারা হত্যা করার চেষ্টা করেছিল আইনের মাধ্যমে তাদের কঠোর শাস্তি দেয়া হোক এবং আমার চিকিৎসা সহায়তার জন্য আর্থিকভাবে সাহায্য সহযোগিতা প্রদানের ব্যবস্থা করে পঙ্গু হওয়ার হাত থেকে আমাকে রক্ষা করা হোক। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মোঃ খালিদ হোসেন আসলাম, শাফায়াত ইসলাম সিহাব ও ফিরোজ কবির প্রমুখ।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email