শনিবার ২ জুলাই ২০২২ ১৮ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চিরিরবন্দরে উৎকোচের বিনিময়ে অযোগ্য প্রধান শিক্ষকদের যোগ্য বানানো হচ্ছে

মো. রফিকুল ইসলাম, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে সদ্য সরকারী হওয়া বে-সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে অযোগ্য প্রধান শিক্ষকদের যোগ্য বানাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিদ্যালয়-১ অধি শাখা থেকে গত ২০ নভেম্বর’২০১৩ইং তারিখে উপ-সচিব আ. কালাম কর্তৃক স্বাক্ষরিত আদেশে চিরিরবন্দর উপজেলার ৯৬টি (বে-সরকারী) বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের মধ্যে মাত্র ৩৬ জন শিক্ষক প্রধান শিক্ষক পদে বহাল রয়েছেন। অবশিষ্ট ৫৪জন প্রধান শিক্ষক তাদের প্রয়োজনীয় যোগ্যতার অভাবে প্রধান শিক্ষক পদ থেকে ঝড়ে পড়েন এবং সহকারী শিক্ষকের তালিকায় রয়েছেন। উলে­খ্য যে, চিরিরবন্দর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আহসান হাবিব এসব ঝড়েপড়া অযোগ্য প্রধান শিক্ষকদের বিভিন্ন দালালের মাধ্যমে মোট অংকের টাকার উৎকোচের বিনিময়ে বিগত ২০১২ইং সালের পুরনো একটি অফিস আদেশ দেখিয়ে এসব অযোগ্য প্রধান শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষকের বেতন স্কেল পাইয়ে দেওয়ার জন্য নুতন করে কাগজপত্র তৈরী করে একটি সুপারিশ করছেন। আরো জানা গেছে এসব ঝড়েপড়া প্রধান শিক্ষকদের শিক্ষাগত যোগ্যতা-এসএসসি, এইচএসসি, আলিম, ফাজিল পাশ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন দালাল জানান, তিনি একাই বেশ ক’টি ঝড়েপড়া প্রধান শিক্ষকের সুপারিশ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে মোট অংকের টাকার উৎকোচের বিনিময়ে কাজ করিয়ে নিয়েছেন। উপজেলা শিক্ষা অফিস কার্যালয়ের সামনে গেলেই এ তদবিরকারক দালালদের সহজেই দেখা যায়। এ নিয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আহসান হাবিবের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, আমি টাকা নিয়েছি তার প্রমান কেথায়। কেউ পারলে আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করুক। এ বিষয়ে নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক ভূক্তভোগি জানান, আমরা আগেও অনেক টাকা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে দিয়েছি। কিন্তু তারপরেও চুড়ান্ত তালিকায় আমাদের নাম প্রধান শিক্ষক হিসেবে আসেনি। আমরা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার নিকট প্রতারণার শিকার হয়েছি। এখন যারা পূর্বে প্রতারিত হননি তারাই কেবল প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছেন। তারা আরো জানান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার একজন ধুরন্ধর ব্যক্তি। এব্যাপারে অভিজ্ঞমহল এ শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সংশি­ষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email