শনিবার ১ অক্টোবর ২০২২ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চিরিরবন্দরে পালিয়ে গিয়ে মোসলেমা বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল

মো. রফিকুল ইসলাম, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলায় পালিয়ে গিয়ে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল সদ্য জেএসসি পাশ করা মেধাবী স্কুল ছাত্রী মোসলেমা খাতুন। সে চলতি বছর বেলতলি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জেএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ লাভ করেছে। পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর পরই মোসলেমার মাতা, খালা , বোন, ভগ্নিপতি নুর আলম উপজেলার দক্ষিণ আলোকডিহি গ্রামের জনৈক পাত্রের সাথে তার বিয়ে ঠিক করে। বিয়ের কথামত গত ১ জানুয়ারী বরযাত্রীরা তার বাড়ীতে এসে উপস্থিত হয়। এ সময় মোসলেমা তার অমতে বিয়ে ঠিক করার কথা জানতে পারে। এ বিয়েতে বাঁধ  সাধে সে নিজেই। এ বিয়েতে রাজি না হওয়ায়  তাকে তার ভগ্নিপতি নুর আলম মারপিটও করে। এরপরও সে ক্ষান্ত হয়নি। নিজেকে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষার জন্য সে কৌঁশলে পালিয়ে আসে তার বিদ্যালয়ে। বিদ্যালয় বন্ধ থাকার কারণে সে প্রধান শিক্ষকের সহায়তা প্রার্থনা করে। প্রধান শিক্ষককে সে  জানায় তার অমতে বিয়ের কথা। বর্তমানে সে প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে আশ্রয় গ্রহণ করেছে। এ ব্যাপারে বেলতলি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ওএফএম মোরশেদ উল  আলম জানান, মেধাবী ছাত্রী মোসলেমা খাতুন বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আমার নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করেছে। তাই আমি তাকে আমার বাড়িতেই আশ্রয় দিয়েছি। এভাবেই মেধাবী  ছাত্রী মোসলেমা তার বাল্য বিয়ে ঠেকিয়ে দিয়েছে। এ ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email