রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ ১লা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চিরিরবন্দরে পুলিশ-বিজিবির সঙ্গে জামায়াত শিবিরের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ২১ রাউন্ড গুলিবর্ষন, আটক-৬

মো. রফিকুল ইসলাম, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : চিরিরবন্দরের রানীরবন্দরে দুবৃর্ত্ত্বরা গাড়িতে ঢিল মেরে পালিয়ে যাওয়ার পর ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে জামায়াত নেতা মকবুল মুন্সির ভাই মোফাজ্জল হোসেনকে (৫৫) ও জামায়াত নেতা আব্দুল জলিল আটক করে এবং পুলিশ বিজিবির সঙ্গে জামায়াত শিবিরের ধাওয়া পাল্টা শুরু হয়। এতে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠে। পরবর্তীতে দোকান বন্ধ করার সময় সাংবাদিক রফিকুল ইসলামের ভাই কাঁচামাল ব্যবসায়ী রায়হান (২৪) ও শফিকুল ইসলামকে (৩০), জিকরুল ইসলামের ছেলে সিরাজুল হক (৩২) আটক করে। ক্রমান্বয়ে পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে জেলা বিজিবি ব্যাটালিয়ান কমান্ডার, জেলা পুলিশ সুপার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সহকারী পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ-বিজিবি ঘটনাস্থলে পৌছে ব্যাপক সাঁড়াশী অভিযান চালিয়ে, চিরিরবন্দর মহিশমারী এলাকার জহুরুল ইসলামের ছেলে মোক্তারুলকে (২৫) আটক করে। পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটলে পুলিশ ২১ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। রাত ৩ টার দিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। কাঁচামাল ব্যবসায়ী রায়হান ও শফিকুল জানান, দোকান বন্ধ করার সময় পুলিশ তাদের আটক করে। আমরা কোনদিন কোন সহিংস ও কোন ধরনের ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিলাম না। অপরদিকে চিরিরবন্দর রানীরবন্দর সড়কে রাতে দুবৃত্তরা চিনিবাস ডাঙ্গা এলাকায় বিএনপি নেতা ইউপি চেয়ারম্যান মোকারম হোসেনের ২টি ট্রাকটরে আগুন লাগিয়ে দেয় এবং চালককে মারধর করে। এ ঘটনায় রানীরবন্দরের আশপাশের এলাকা পুরুষশুন্য হয়ে পড়েছে এবং তাদের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

Spread the love