মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

জিততে হলে রেকর্ড গড়তে হবে বাংলাদেশকে

টেস্ট ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড ৪১৮। শ্রীলংকার বিপক্ষে যেকোনো ভেন্যুতে সর্বোচ্চ ৩৭৭ রান তাড়া করে জিতেছে পাকিস্তান। অন্যদিকে সিরিজ নির্ধারণী টেস্ট জিততে বাংলাদেশকে ৪৩৮ রানের লক্ষ্য বেঁধে দিয়েছে লংকানরা। ফলে ম্যাচ তথা সিরিজ জিততে চাইলে ইতিহাস গড়তে হবে টাইগারদের।

প্রথম ইনিংসে ৭ উইকেটে ৪৯৩ রান করার পর নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস ৯ উইকেটে ১৯৪ রানে ঘোষণা করেছে স্বাগতিক শ্রীলংকা। তাই জয়ের জন্য ২৫১ রানে প্রথম ইনিংসে অল আউট হওয়া বাংলাদেশের প্রয়োজন সবমিলিয়ে ৪৩৮ রান। সময় পাচ্ছে প্রায় পাঁচটি সেশন ও দেড়শ ওভারের কিছু বেশি।

উল্লেখ্য, চতুর্থ ইনিংসে শ্রীলংকার বিপক্ষে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ স্কোর ৪১৩ রান। ঢাকায় ২০০৮ সালে এত রান করেও হেরেছিল সাকিব-মুশফিকরা।

১৭ রানে দুই উইকেট নিয়ে পাল্লেকেলে টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করে শ্রীলংকা। শুরু থেকেই স্বাগতিকদের চেপে ধরে বাংলাদেশ। ফলও মেলে দ্রুত। তাইজুলের মিডল-লেগ স্ট্যাম্পে করা বলটি খেলতে গিয়ে শর্ট লেগে ক্যাচ তুলে দিয়েছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। এর আগে ১২ রান করেন তিনি।

এরপর বড় জুটি গড়েন অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নে ও ধনঞ্জয় ডি সিলভা। ৬৬ রানে করুণা আউট হলে ভাঙে দুজনের ৭৩ রানের জুটি। এরপরই ফিরে যান ৪১ রান করা ধনঞ্জয়। উইকেট দুটি নেন যথাক্রমে সাইফ হাসান ও মেহেদী মিরাজ।

ক্রমেই ভয়ংকর হয়ে উঠতে থাকা পাথুম নিশাংকাকে লাঞ্চের আগের ওভারে ফিরিয়ে দেন তাইজুল ইসলাম। এর আগে তিনি করেন ২৪ রান। লাঞ্চের পর একে একে আউট হন নিরোশান ডিকওয়েলা ও রমেশ মেন্ডিস। এর আগে তারা করেন যথাক্রমে ২৪ ও ৮ রান।

তাইজুল ইসলামের বলে সুরাঙ্গা লাকমল ১২ রানে বোল্ড হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ইনিংস ঘোষণা করে শীরলংকা। বাংলাদেশের হয়ে একাই ৫ উইকেট নেন তাইজুল। এছাড়া মেহেদি হাসান মিরাজ দুটি, তাসকিন আহমেদ ও সাইফ হাসান একটি করে উইকেট নেন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email