শনিবার ২১ মে ২০২২ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জুয়া খেলার দায়েপার্বতীপুর উপজেলা রেজিস্ট্রি অফিসের উপ-নিবন্ধকের (সাব-রেজিস্টার)কারাদন্ড

Jalপার্বতীপুর উপজেলা রেজিস্ট্রি অফিসের উপ-নিবন্ধক (সাব-রেজিস্টার) খলিলুর রহমান জুয়া খেলার দায়ে কারাবাসে থাকায় দিনাজপুরের দুটি উপজেলায় জমিজমাসহ স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি বেচাকেনা ও বন্ধক নিবন্ধনের কাজ বন্ধ রয়েছে। এতে দুই উপজেলার প্রায় তিন শতাধিক দলিল লেখক ও তাদের সহকারীরা হঠাৎ করে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। এদিকে সাজাপ্রাপ্ত উপ-নিবন্ধকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের নিকট সুপারিশ করে চিঠি পাঠিয়েছেন দিনাজপুরের জেলা রেজিস্টার।
জানা গেছে পার্বতীপুর উপজেলার রেজিস্ট্রি অফিসের উপ-নিবন্ধক মো. খলিলুর রহমান গত শুক্রবার গভীর রাতে তার দেশের বাড়ী কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলা সদরে স্থানীয় পাবলিক ক্লাবে জুয়া খেলার সময় ৬ সঙ্গীসহ ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে হাতে নাতে ধরা পড়েন। এসময় আদালতের বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান সাব-রেজিস্টার খলিলুর রহমান সহ আটক ৭ জুয়াড়ীর প্রত্যেককে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।
পার্বতীপুর রেজিস্ট্রিরী অফিসের অফিস সহকারী ফয়জার রহমান জানান, মো. খলিলুর রহমান ২০১৩ সালের ১৮ মার্চ উপ-নিবন্ধক হিসাবে পার্বতীপুরে যোগদান করেন। একই সঙ্গে তিনি দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলায়ও উপ-নিবন্ধকের অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছিলেন। কুড়িগ্রাম জেলা মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিদর্শক জসিম উদ্দিন জানান- ওই দিন রাতে ভুরুংগামারী উপজেলার কাছাকাছি এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা শেষে কুড়িগ্রাম ফেরার সময় ভোর ৪ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নাগেশ্বরী থানার উল্টো দিকে প্রায় ৫শ গজ দূরের পাবলিক ক্লাবে অভিযান চালিয়ে খলিলুর রহমানসহ ৭ জুয়াড়ীকে গ্রেফতার করা হয়।
দিনাজপুরের জেলা রেজিস্ট্রার রনজিৎ কুমার সিং জানান- পার্বতীপুরের উপ-নিবন্ধক খলিলুর রহমানের কারাদন্ডের খবর পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য  ঢাকায় উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের নিকট সুপারিশ করে চিঠি দেয়া হয়েছে।
এদিকে আজ সোমবার সন্ধ্যায় পার্বতীপুরের জৈষ্ঠ দলিল লেখকরা জানান উপ-নিবন্ধক না থাকায় জমিজমা কেনা বেচা ও বন্ধক রেজিস্ট্রি বন্ধ থাকায় দিনাজপুরের পার্বতীপুর ও ঘোড়াঘাট উপজেলার ৩ শতাধিক দলিল লেখক ও তাদের সহকারী হঠাৎ কর্মহীন হয়ে পড়েছে বলে। অপরদিকে নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক প্রায় অর্ধ শতাধিক নকল নবিশ বেশ কয়েক মাস যাবৎ ধরে ওই কর্মকর্তার ইশারা ইঙ্গিতে সম্মানীভাতা বন্ধ করে দেয় ভুক্ত ভুগিতে অভিযোগ।

 

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email