শনিবার ২ মার্চ ২০২৪ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ডিমলায় ঋণ গ্রহিতা নারী সদস্যকে লাঞ্চিত করেছে ব্র্যাক কর্মকর্তা

জাহাঙ্গীর আলম রেজা, ডিমলা (নীলফামারী)প্রতিনিধি : ঋণ গ্রহিতাকে শ্লীতাহানী ঘটনায় প্রকাশ্য ক্ষমা চেয়ে কিস্তির টাকা উত্তোলন বন্ধ করার অঙ্গিকার করেন ব্রাকের শাখা ব্যবস্থাপক।

নীলফামারীর ডিমলায় ব্র্যাক কর্মকর্তার হাতে নারী ঋণ গ্রহিতাকে লাঞ্চিত হওয়ার অভিযোগে বুধবার রাতে ডালিয়া ব্র্যাক অফিসে ঋণ গ্রহিতার সাথে ব্র্যাক কর্মকর্তাদের আপোষ মিমাংসা হয়। এ সময় ব্র্যাকের এরিয়া ব্যবস্থাপক লিয়াকত আলীসহ উক্ত শাখার কর্মকর্তাগন আওয়ামীলীগ খালিশা চাপানি ইউনিয়ন সভাপতি সোহরাব হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায় গত ১৯ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যায় ঋণের কিস্তি উত্তোলনের জন্য খালিশা চাপানী ইউনিয়নের ডালিয়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের বাড়ীতে যান ডালিয়া ব্র্যাক ব্র্যাঞ্চের ম্যানেজার রেজাউল করিমসহ কয়েকজন মাঠ কর্মি। চলমান হরতাল ও অবরোধের কারনে ঋন গ্রহিতা নিলুফার কিস্তির টাকা প্রদান করতে পারেনি। কিস্তির টাকা না থাকায় ২দিনের সময় চায় নিলুফা। কিন্তু উপজেলার খালিশা চাপানী ডালিয়া ব্র্যাঞ্চের (মহিলা) দলের সদস্য নিলুফা বেগম (৩০) কে কিস্তির টাকা দিতে বিলম্ব হওয়ায় ওই ব্র্যাঞ্চের ম্যানেজার রেজাউল করিম, ফিল্ড কর্মকর্তা আব্বাস আলীসহ কয়েকজন ফিল্মি ষ্টাইলে তার শয়ন ঘড়ের দরজা লাথি মেরে ভাংচুর করে নিলুফা ও তার স্বামী সিরাজুল ইসলাম (৪০) কে টেনে হেচরে শারিরীকভাবে লাঞ্ছিত করে। এ সময় তাদের নির্যাতনে নিলুফার শ্লীতাহানী করে। এ সময় সিরাজুল গুরুতর অসুস্থ্য হলে তাকে ডিমলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় এলাকারবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে ব্র্যাক কর্মীদের আটক করলে মুচলেকা দিয়ে তারা রক্ষা পায়। এ ব্যাপারে নিলুফা বেগম ডিমলা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ডিমলা থানার অফিসার ইনচার্জ শওকত আলী জানায়, ঋণ গ্রহিতাকে শ্লীতাহানীর বিষয়টি উভয় পক্ষের মধ্যে আপোষ মিমাংশা হয়েছে মর্মে মামলাটি নথিভুক্ত করা হয়নি। ব্র্যাকের এরিয়া ব্যবস্থাপক লিয়াকত আলী জানায়, নিলুফা বেগম বর্তমানে ঋণ পরিশোধ করতে না পারায় জৈষ্ঠ মাসে টাকা পরিশোধ করবে মর্মে আপোষ মিমাংসায় সময় দেয়া হয়েছে। তিনি ঘটনার বিষয় আপোষ মিমাংসার বিষয়টি স্বীকার করেন।

Spread the love