বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডিমলায় সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগ

জাহাংগীর আলম রেজা,ডিমলা(নীলফামারী) : নীলফামারীর ডিমলায় সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা অবৈধ কার্যকলাপের ঘটনা ফাঁস হলে ব্যাংকসহ ডিমলায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। ঘটনাটি জানাজানি হলে বৃহস্পতিবার সকালে উক্ত কর্মকর্তা ব্যাংকের হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে পালিয়ে যায়।

গত মঙ্গলবার রাতে ডিমলা সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তা হাবিবুল্লা দেওয়ান (৪৫) খগাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের জোরজিগা বাজার সংলগ্ন অনৈতিক কাজে সহায়তাকারী কুলসুম বেগম চালকির বাড়ীতে অনৈতিক কার্যকলাপের সময় স্থানীয়রা আটক করে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা ব্যাংক কর্মকর্তা হাবিবুল্লা ও কথিত স্ত্রী কানু বালা ওরফে গীতা ওরফে অজানাকে (৩৫) কে আটক করে গাছে বেধে রাখে। স্থানীয় লোকজনদের ১৮ হাজার টাকা দিয়ে মুচলেকা নিয়ে ছারা পায় আটককৃত ব্যাংক কর্মকর্তাসহ কথিত স্ত্রী কানুবালা।

ব্যাংক সুত্রে জানা যায়,সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা হাবিবুল্লা দেওয়ান ডিমলায় চাকুরীরত অবস্থায় থাকার জন্য কোন বাসা ভাড়া না নিয়ে মাঝে মধ্যেই ব্যাংকে রাত্রী যাপন করার পাশাপাশি রাতের আধারে ব্যাংকের বাহিরে পাতানো বোন জোরজিগা বাজার সংলগ্ন কুলসুম বেগম চালকির বাড়ীতে অবস্থান করেন। সেখানে বিভিন্ন সময় অনৈতিক কাজের উদ্দেশ্যে ভাড়া করে মহিলা এনে অবৈধ কাজে লিপ্ত হওয়ার এক পর্যায়ে মঙ্গলবারের ঘটনাটি ফাঁস হলে। বৃহস্পতিবার সকালে ওই ব্যাংক কর্মকর্তা কৌশলে পালিয়ে যায়। এ ব্যপারে ব্যাংক কর্মকর্তা হাবিবুল্লা দেওয়ান জানায়, কানু বালা আমার বিবাহিত স্ত্রী। মঙ্গলবার রাতে জোরজিগা বাজারে চালকির বাড়ীতে স্থানীয় লোকজন আমাদের ২জনকে আটক করে ১৮ হাজার টাকা মিষ্টি খাওয়ার জন্য নেয়। তিনি স্বীকার করেন, কোন বাসা ভাড়া না নিয়ে জোরজিগা বাজার সংলগ্ন কুলসুম বেগম চালকির বাড়ীতে রাত্রী যাপন করার কথা।

কথিত স্ত্রীর সাথে একাধিক বার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে সোনালী ব্যাংক ডিমলা শাখার ব্যবস্থাপক সাদেকুল ইসলাম জানায়, ঘটনাটি বৃহস্পতিবার সকালে শুনার পর তাকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি আমাকে কিছু না বলে তরিঘরি নিচে নেমে চলে যায়। বিষয়টি উদ্ধর্তন কতৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।

 

Spread the love