রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ডোমারে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগের তদন্ত

আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার, (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ
নীলফামারীর ডোমারে বামুনিয়া পাটোয়ারীপাড়া প্রধান শিক্ষক সাহিদা বানু (বেনু)’র বিরুদ্ধে ১০৯ জনের স্বাক্ষরিত অনিয়ম ও দূর্নিতির অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়েছে। সোমবার দুপুর ২টায় উপজেলার বামুনিয়া ইউনিয়নের পাটোয়ারীপাড়া সপ্রাবির অবিভাবক ম্যানেজিং কমিমটির সদস্য ও শত শত এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে তদন্ত করেছে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ বিভিন্ন দপ্তরে স্বাক্ষরিত  অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, গত  ১৯ জুলাই উপবৃত্তির টাকা প্রদানে অবিভাবকদের নিকট থেকে জোড়পূর্বক ১০০ টাকা আদায় করে। এজন্য অনেক ছাত্রছাত্রীদের বইও আটক করে রাখে। “কি জন্য ১০০ টাকা দিতে হবে ”ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আাউয়াল হোসেন  প্রধান শিক্ষকের নিকট জানতে চাইলে তাকেও গালমন্দ ও ধমক দিয়ে স্কুল থেকে বের করে দেন। তিনি বিদ্যালয় মেরামতের স্লিপ বিলের ৪০ হাজার টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছে বলে অনেকে জানান। ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাহিদা বানু (বেনু) উপবৃত্তির ১০০ টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করেন এবং মেরামতের স্লিপ বিলের ৪০ হাজার টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করার বিষয়টি এড়িয়ে যান। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের সংরক্ষিত ইউপি সদস্য গোলাপী বেগম জানান, দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্রী সানী আক্তারের মা লাকী বেগম তার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটির নিকট সাক্ষী দিতে আসায় সবার সামনে অপমান করে ওই শিক্ষিকা। এব্যাপারে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিমটির সভাপতি এমদাদুল হক জানান, বিদ্যালয়ে উত্তেজনার কথা স্বীকার করলেও স্লিপের ৪০হাজার টাকার মধ্যে কিছু টাকার মাল কিনেছে বলে সাফাই দেয়। সহকারী শিক্ষা অফিসার ও তদন্ত কারী কর্মকর্তা সোহেল পারভেজ ও রাকিবুল ইসলাম জানান, সবার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত রির্পোট তৈরী করে উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের নিকট পাঠাব ,তারা ব্যবস্থা নেবে।

Spread the love