রবিবার ১৪ অগাস্ট ২০২২ ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

তথ্য চাওয়ায় সাংবাদিককে তুই-তুকারি প্রধান শিক্ষকের

ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ সংবাদ পরিবেশনের জন্য মুঠোফোনে তথ্য চাওয়ায় সাংবাদিকদের সাথে তুই তুকারি ভাষায় গালিগালাজ করেছেন নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া নিউ মডেল বালিকা উচ্চ  বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম। ওই শিক্ষক উপজেলার সাংবাদিকের ব্যক্তিগত বিষয় তুলেও গালাগালি করেন। বুধবার (৩আগস্ট) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।
এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার (৪-আগস্ট) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী সাংবাদিকরা। 
জানা গেছে, গত ১৯ জুলাই উপজেলা উন্নয়ন সহায়তা খাতের আওতায় বালাপাড়া নিউ মডেল বালিকা বিদ্যালয়ে বিআরবি কোম্পানির ৮টি বৈদ্যুতিক পাখা দেয় উপজেলা প্রশাসন। এসব বৈদ্যুতিক পাখা বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষে ব্যাবহারের নির্দেশনা থাকলেও তা মানা হয়নি স্থানীয় ও অভিভাবকদের এমন অভিযোগে পেক্ষিতে সংবাদ পরিবেশানের জন্য এই তথ্য চাওয়া হলে প্রধান শিক্ষক রফিকুল এই দুরব্যবহার করেন। এ ঘটনায় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন জেলা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম ।
সরজমিনে দেখা যায়, বিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেণীকক্ষে এপি ব্রান্ডের পুরাতন বৈদ্যুতিক পাখা লাগানো রয়েছে। শুধুমাত্র দশম শ্রেণীর কক্ষে একটি নতুন বৈদ্যুতিক পাখা রয়েছে।
বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোস্তাহেদুল ইসলাম, রোকনুজ্জামান রোকন, অফিস সহকারী-মজিদুল ইসলামের জানান, প্রধান শিক্ষক গত সপ্তাহে দশম শ্রেণীর কক্ষে বিআরবি ব্রান্ডের ১টি নতুন বৈদ্যুতিক পাখা লাগিয়েছিলেন,আর স্টোর রুমে দুটি বৈদ্যুতিক পাখা প্যাকেটজাত অবস্থায় আছে । বাকী বৈদ্যুতিক পাখার বিষয় আমরা কিছু জানি না। নবম ও দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা জানান, গত ২ সপ্তাহের মধ্যে তাদের শ্রেণী কক্ষে নতুন কোনো বৈদ্যুতিক পাখা লাগানো হয়নি। পুরনো বৈদ্যুতিক পাখার বাতাসে চলছে তাদের পাঠদান কার্যক্রম।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সহকারী শিক্ষক জানান, নতুন বৈদ্যুতিক পাখাগুলো প্রধান শিক্ষক বাড়িতে নিয়ে গেছেন।
প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলামকে স্কুলে না পেয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি ওই সাংবাদিককে তুই তুকারি বলতে শুরু করেন, তোকে তুই না বলে কি আপনি বলবো ? তুই কেন আমার স্কুলে গেছিস বলে অসৌজন্যমূলক অশালীন আচরন করেন। এ সময় তিনি বৈদ্যুতিক পাখার বিষয়ে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের নিয়েও অশালীন মন্তব্য করেন।প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মাসুদ পারভেজ রুবেল বলেন, বৈদ্যুতিক পাখার বিষয়ে প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম ইসলামের কাছে তথ্য চাইলে তিনি মুঠোফোনে আমাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেন।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  বেলায়েত হোসেন জানান, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ ও একটি কল রেকডিং পেয়েছি। সেই সাথে তদন্ত করে এই ঘটনার ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email