বুধবার ২৯ মার্চ ২০২৩ ১৫ই চৈত্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দক্ষিণ কোরিয়ায় মার্কিন রাষ্ট্রদূতের ওপর হামলা

দক্ষিণ কোরিয়ায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্ক লিপার্টের ওপর হামলা চালিয়েছে কিম নামে এক ব্যক্তি। আজ বৃহস্পতিবার সকালে দেশটির রাজধানী সিউলে এক অনুষ্ঠানে তার ওপর এ হামলার ঘটনা ঘটে।

দু’কোরিয়া পুনরেকত্রীকরণ নিয়ে কর্মরত গ্রুপ ‘কোরিয়া কাউন্সিল ফর রিকনসিলিয়েশন এন্ড কোঅপারেশন’ আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে সকালে সিউলের সেজং হলে যান রাষ্ট্রদূত লিপার্ট।

সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে তার ওপর আক্রমণ চালান কিম। যিনি অনুষ্ঠান আয়োজক গ্রুপের সদস্য বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তিনি ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন, তবে আশঙ্কামুক্ত।

এদিকে এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী গবেষণা সংস্থা আরিরাং ইনস্টিটিউটের মাইকেল ল্যামব্রাউ বলেন, বাদামি ও তামাটে রঙের কোরিয়ার ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরে এসেছিলেন ওই ব্যক্তি। তিনি চেঁচিয়ে কিছু বলে রাষ্ট্রদূতের কাছে গিয়ে তার মুখে কোপ দেন।

আজ সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে তার ওপর আক্রমণ চালান কিম, যিনি অনুষ্ঠান আয়োজক গ্রুপের সদস্য বলে পুলিশ জানিয়েছে। কিম কি-জং নামের ৫৫ বছর বয়সী এই ব্যক্তি একটি ছোট ফল কাটার ছুরি নিয়ে হামলা চালান। এর আগে ২০১০ সালে সিউলে জাপানি রাষ্ট্রদূতের ওপরও একবার ঢিল ছুড়ে তিনি হামলার চেষ্টা চালিয়েছিলেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

মাইকেল ল্যামব্রাউ বলেন, কোরীয় উপত্যকা ও জাপানের তাকেশিমার মধ্যবর্তী দোকদো নামের দ্বীপপুঞ্জের মালিকানা নিয়ে তিনি একাই জাপানবিরোধী বিক্ষোভ করেছেন। তিনি বলেন, রাষ্ট্রদূত চেয়ারে বসেই তাকে প্রতিরোধের চেষ্টা করেন। তার মুখের ডানপাশে ৭ ইঞ্চিজুড়ে গভীর ক্ষত হয়েছে। ওই ব্যক্তিকে যখন আটকানো হচ্ছিল তখন তিনি চেঁচিয়ে কোরিয়ার স্বাধীনতার কথা বলছিলেন। তার কথা শুনে মনে হয়েছে, তিনি আমেরিকাবিরোধী, সাম্রাজ্যবাদবিরোধী।

অপরদিকে এ হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যারি হার্ফ বলেছেন, আমরা তীব্রভাবে এ ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানাই। হোয়াইট হাউজের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা খবর পেয়ে লিপার্টকে ফোন করে দ্রুত তার সুস্থতা কামনা করেছেন।