শুক্রবার ২০ মে ২০২২ ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে একই রাতে ২ বাড়ীতে ডাকাতি

দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে শুক্রবার দিবাগত রাতে ২টি বাড়ীতে ডাকাতির ঘটনায় নগদ টাকাসহ প্রায় ১৪ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে ডাকাতেরা। উপজেলার দাউদপুর বাজার সংলগ্ন পূর্ব পাশে হেয়াতপুর গ্রামের ইটভাটা মালিক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমান এবং ওই বাজারের পশ্চিম পাশে খাদ্যগুদাম সংলগ্ন পরমানন্দপুর গ্রামের বিশিষ্ট ধান-চাউল ব্যবসায়ী আঃ মতিনের বাসায় এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।  বাধা দেয়ায় ডাকাতের মারপিটে পরমানন্দপুর গ্রামের ৬ জন গ্রামবাসী আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ৩ জনকে নবাবগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ভর্তিকৃত আহতরা হলো উপজেলার পরমানন্দপুর গ্রামের মইদুল ইসলাম, মঞ্জুরুল ইসলাম ও মনিরুল ইসলাম। ডাকাতির খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। জানা যায়, হাফিজুর রহমানের বাড়ীতে রাত অনুমান ২ টায় ৩০/৩৫ জনের একটি ডাকাতদল সশস্ত্র অবস্থায় বাড়ীর প্রধান গেট ও দোতলার গেটের তালা ভেঙ্গে বাড়ীর মালিক ও অন্যান্য সদস্যদের বেঁধে ফেলে। এরপর ডাকাতেরা বাড়ীর সকল সদস্যদের ৫টি মোবাইল ফোন সেট কেড়ে নিয়ে আলমারীর তালা ভেঙ্গে ১০ ভরি স্বর্নালংকার, নগদ ৯২ হাজার টাকা ও একটি পালচার মোটর সাইকেল লুট করে নিয়ে যায়। এরপর ওই ডাকাতদল বাজারের পশ্চিম পাশে আঃ মতিনের বাড়ীতে একই কৌশলে তালা ভেঙ্গে দোতলায় থাকা বাড়ীর সদস্যদের বেঁধে আলমারীর তালা ভেঙ্গে নগদ ৪ লাখ ৩০ হাজারর টাকা, ১২ ভরি সোনার অলংকার, কাপড়-চোপড় ও ২টি মোবাইল ফোনসেট সহ একটি বাজাজ মোটর সাইকেল লুট করে নিয়ে যায়। আঃ মতিনের বাড়ীতে ডাকাতির সময় বাড়ী সংলগ্ন মতিনের চাতালের নৈশপ্রহরী আঃ মান্নান টেটর পেয়ে চিৎকার করলে গ্রামবাসীরা এগিয়ে আসে এবং গ্রামবাসীর সাথে ডাকাতদলের সংঘর্ষ হলে ৬ জন গ্রামবাসী আহত হয়। এসময় ডাকাতেরা কয়েকটি ককটেলের বিষ্ফোরন ঘটিয়ে পালিয়ে  যায়। ডাকাতির পরে মোবাইল ফোনে খবর পেয়ে নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ খবর লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্ত্ততি চলছিল।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email