শনিবার ১ অক্টোবর ২০২২ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার গণধোলাই

দিনাজপুর প্রতিনিধি: সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পিয়ন কাম নৈশ্য প্রহরী নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগে বিক্ষুব্ধ জনতার হাতে গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হিটলারুজ্জামান (হাকিম)।

গণধোলাইয়ে আহত হয়ে বর্তমানে সে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর আগে তিনি বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

শিক্ষা কর্মকর্তা হিটলারুজ্জামানের বাড়ী বগুড়া জেলার ধুনট উপজেলার নাটাবাড়ী গ্রামে। দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত থাকলেও তিনি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন বিরামপুরে।

অভিযোগে জানা যায়, নবাবগঞ্জ উপজেলার ৪৬টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পিয়ন কাম নৈশ্য প্রহরী নিয়োগ দেয়ার নামে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হিটলারুজ্জামান (হাকিম) বিভিন্ন প্রার্থীর কাছ থেকে ৪ থেকে ৫ লাখ করে হাতিয়ে নেন। নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ না করেই তিনি সম্প্রতি বদলী নিয়েছেন পঞ্চগড়ে। তার এই বদলীর আদেশের খবরে টাকার বিনিময়ে চাকুরী প্রার্থীদের কাছে ছড়িয়ে পড়ে। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা টাকা নিয়ে চাকুরী দিয়েই অন্যত্র চলে যাচ্ছেন-এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে ১২ মার্চ বুধবার বিকেলে চাকুরীর জন্য টাকা দেয়া লোকজন জড়ো হন বিরামপুর রেলগেটে। সন্ধ্যায় বিরামপুর রেলগেটে তাকে আটক করে টাকা ফেরত চাইলে তিনি তা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। একপর্যায়ে টাকা দেয়া চাকুরী প্রার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হিটলারুজ্জামানকে বেদম গণপিটুনী দেয়া শুরু করেন এবং তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

স্থানীয় লোকজন তাকে জনরোষ থেকে উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী বিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান খায়রুজ্জামান রাজুর মিলচাতালে নিয়ে যান। এরপর তাকে স্থানীয় লোকের সহায়তায় বিরামপুর হাসপাতালে ভর্তি করেন (হাসপাতালের ক্রমিক নং-২৬৬)।

হাসপাতালে শিক্ষা কর্মকর্তা হিটলারুজ্জামান চাকুরীর বিনিময়ে টাকা নেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, লোকজন ভুল বুঝে তার উপর আক্রমন করেছে।

রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য আহত শিক্ষা কর্মকর্তা হিটলারুজ্জামানকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাপাতালে স্থানামত্মর করা হয়েছে। বর্তমানে সে বগুড়ায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার হিটলারুজ্জামানের মোবাইলে কল করা হলে মোবাইল রিসিভ করেন তার ভাই আনোয়ার হোসেন। আনোয়ার হোসেন জানান, তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ব্যাপারে দিনাজপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা একেএম আনোয়ার হোসেন জানান, নবাবগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হিটলারুজ্জামানকে মারপিটের ঘটনা তিনি শুনেছেন। তিনি জানান, সম্প্রতি পঞ্চগড়ে তার বদলীর আদেশ হয়েছে। অর্থের বিনিময়ে পিয়ন কাম নৈশ্য প্রহরী নিয়োগ দেয়ার ব্যাপারে তিনি জানান, নিয়োগের বিষয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের কিছু করার নেই। এ বিষয়টি সংশি­ষ্ঠ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটি (এসএমসি)-র উপর নির্ভর করে।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email