শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪ ২৯শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরের রাণীরবন্দরে আসামী ধরাকে কেন্দ্র করে যৌথবাহিনী সাথে জামায়াতের ব্যাপক সংর্ঘষ। গুলি বর্ষণ।

মো: রফিকুল ইসলাম, চিরিরবন্দর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার রাণীরবন্দরে আসামী ধরাকে কেন্দ্র করে যৌথ বাহিনী ব্যাপক সংঘর্ষ। পুলিশের গুলি বর্ষণ।

 

শনিবার রাত ৮টায় উপজেলার রাণীরবন্দর বাজারে এ সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে।

 

স্থানীয় লোকজন জানান, সন্ধ্যা ৮টায় ডিবি পুলিশ রাণীরবন্দর বাজারে পল্লী চিকিৎসক মোঃ খোদা বখস নামে এক ব্যক্তি আটক করে। এ সময় স্থানীয় লোকজন বাধা দিলে আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে তাদের সংঘর্ষ বেধে যায়। ঘটনার সময় বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ হলে যৌথ বাহিনী ব্যাপক গুলি বর্ষণ করে। এতে মহিলা সহ বেশ কয়েক জন আহত হয়েছে বলে জানা যায়।

 

চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আনিছুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা গাড়ী ভাংচুর করছে এমন সংবাদের ভিত্তিত্বে আইন-শৃংখলা বাহিনী সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা তাদেরতে লক্ষ্য করে ককটেল হামলা চালায়। যৌথবাহিনী সেখানে আত্মরক্ষার্থে গুলি বর্ষণ করেছে। এ ঘটনায় হতাহত এবং কত রাউন্ড গুলি ব্যবহার করা হয়েছে তা এই মুহুর্তে নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। আটক খোদা বখস নাশকতা মামলা আসামী এবং শিবিরের রানীরবন্দর সাংগঠনিক শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মতিউর রহমান মতির বড় ভাই।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রয়ে ঘটনাস্থলে এক প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

Spread the love