রবিবার ২৬ জুন ২০২২ ১২ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরের রামসাগর এখন মাদক সেবী আর ছিনতাইকারীদের অভয়ারণ্যে পরিণত

Ram Sagorদিনাজপুরের রামসাগর সৃষ্টির সূচনালগ্ন থেকে প্রকৃতি আর সৌন্দর্য্য মানুষকে হাতছানি দেয়। তাই মানুষ বারে বারে ছুটে যেতে চায় প্রকৃতির কোলে। সৌন্দর্য্যকে মানুষ প্রাণভরে উপভোগ করতে চায়। মানুষ প্রকৃতির মধ্যে সৃষ্টির রহস্য খুঁজে পেতে বারে বারে আকুল হয়ে উঠে। এমনি একটি রহস্যের নাম দিনাজপুরের রামসাগর।দিনাজপুর শহর থেকে ৮ কিঃ মিঃ দক্ষিণে ভারত সীমান্ত সংলগ্ন অত্যন্ত নিরিবিলি পরিবেশে অবস্থিত উপমহাদেশের সবচেয়ে বিষ্ময়কর এ দিঘীর নাম রামসাগর।
চারিদিকের সবুজ প্রান্তরের মাঝখানে ছোট বড় কৃতিম পাহাড়ের হাতছানি। গৈরিক আর ধূসর বর্ণের ছোট বড় আর উঁচু-নিচু টিলা দ্বারা বেষ্টিত গ্রামীণ সৌন্দর্য আর প্রকৃতির মনোমুগ্ধকর পরিবেশে প্রকৃতির কোলে অবস্থিত বিরাট জলরাশির নাম রামসাগর। তাই এখানে ছুটে আসে দেশ-বিদেশ থেকে শত শত দর্শনার্থী।
দিঘীসহ মোট পাড় ভূমির আয়তন ৫ লাখ ৩৭ হাজার ৪ শত ৯২ বর্গ মিটার। আর জলভাগের দৈর্ঘ্য ১ হাজার ৩১ মিটার।  প্রস্থ রয়েছে ৩৬৪ মিটার। ১৭৬০ খ্রিস্টাব্দে দুর্ভিক্ষের হাত থেকে প্রজাদের রক্ষা করতে “কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচি” এর আওতায় এই দিঘী খননের নির্দেশ দেন দিনাজপুরের মহারাজা রামনাথ। প্রজাভক্ত এ রাজা উজাড় করে দেন আপদ কালীন সঞ্চিত রাজ শষ্য ভান্ডার। খনন চলে দীর্ঘ ৬ বছর। এই ভাবে রক্ষা পায় মহারাজার প্রজারা। আর সবার অজান্তে ইতিহাস সৃষ্টি করে আজকের এই দিনাজপুরের রামসাগর।
এখানে রয়েছে দর্শনার্থীদের রাত্রী যাপনের জন্য একটি ডাকবাংলো, কিন্তু নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার না থাকায় দিন দিন দর্শনার্থীদের সংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে। আশে পাশে নেই পুলিশ চৌকি তাছাড়া নেই কোনো পর্যাপ্ত নিজস্ব নিরাপত্তা ব্যবস্থা। মাদক বিক্রেতা, ছিনতাইকারী আর প্রতারকদের আড্ডা এখানে। এখানে নেই কোনো উন্নতমানের খাবার রেস্টুরেন্ট কিংবা আবাসিক হোটেল। তাই দর্শনার্থীরা বেলা ডোবার আগেই রামসাগর ত্যাগ করে শহরে চলে যায়। রামসাগর বর্তমানে রয়েছে বনবিভাগের নিয়ন্ত্রণে।
তবে পর্যটন বিভাগের অধীনে নিয়ে নিরাপত্তা জোরদার, অধিকসংখ্যক আবাসিক হোটেল নির্মাণ করলে রামসাগর হতে পারে একটি অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র আর রাজস্ব আয় বৃদ্ধির ক্ষেত্র। তাই সরকারী উদ্যোগ ও ব্যবস্থাপনা খুবই প্রয়োজন বলে মনে করেন এলাকার সুধীজন।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email