বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবসে বর্ণাঢ্য র‌্যালীর উদ্বোধন

কাশী কুমার দাশ, স্টাফ রিপোর্টার ॥ দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম বলেছেন, প্রবীণদের স্থায়ী ঠিকানা হবে পরিবারে, বৃদ্ধাশ্রম নয়। অর্থনীতি ও বিদেশী সংস্কৃতিকে আমরা লালন করি বলেই আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি থেকে আমরা দুরে সরে যাচ্ছি। এই সংস্কৃতিকে আমাদের ফিরিয়ে আনতে হবে। বিশেষ করে প্রবীণ প্রজন্মকে নবীণদের দায়িত্ব নিতে হবে। আইন দিয়ে প্রবীণদের সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়, চাই পারিবারিক বন্ধনকে সুদৃঢ় করা এবং আমাদের সংস্কৃতিকে জাগ্রত করা।

“বয়স বৈষম্যের বিরুদ্ধে রুখে দাড়ান”- এবারের প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে গতকাল ১ অক্টোবর আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস উপলক্ষ্যে জেলা প্রশাসন, সমাজসেবা কার্যালয় ও প্রবীণ হিতৈষী সংঘ, দিনাজপুর এর যৌথ আয়োজনে আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস-২০১৬’র বর্ণাঢ্য র‌্যালীর উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। র‌্যালী শেষে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে প্রবীণ হিতৈষী সংঘর সহ-সভাপতি সিরাজউদ্দীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রবীণ হিতৈষী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ ডাঃ চৌধুরী মোসাদ্দেকুল ইজদানী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার হামিদুল আলম, সিভিল সার্জন ডাঃ অমলেন্দু বিশ^াস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ আবু রায়হান মিঞা, সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক স্টিফেন মুর্মু।

সকাল ১০টায় দিনাজপুর ইনষ্টিটিউট হতে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম, বিশেষ অতিথি পুলিশ সুপার মোঃ হামিদুল আলম এর নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয় গিয়ে সমাপ্ত হয়। আলোচনা সভায় মুক্ত আলোচনা করেন ডাঃ মোঃ শহিদুল্লাহ, মাহাতাব আলী খান, জিনাত আরা চৌধুরী মিলি, কামরুজ্জামান, লতিফুর রহমান ও ছাত্রী রেশমী পারভীন। শেষে মমতাময় ও মমতাময়ী পুরস্কার ও রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিদ্বয়। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কানিজ ফাতেমা বেগম। এ ছাড়া এরিস্টো ফার্মাসিউটিক্যাল এর সৌজন্যে সারাদিন ব্যাপী প্রবীণদের জন্য ফ্রি স্বাস্থ্যসেবা প্রদান ও ডায়াবেটিস পরীক্ষাসহ ঔষধ বিতরণ করা হয়। সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন মেহেরুল্লাহ বাদল।

Spread the love