রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে গণমাধ্যম কর্মীদের নিয়ে প্রবীণ অধিকার বিষয়ে করণীয় শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ॥

মোঃ মেহেদী হাসান উজ্জল, ফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরে প্রবীণ বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের করণীয় শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত। গতকাল সোমবার সকাল ১০টায় দিনাজপুরে বেসরকারি সংস্থা বহুব্রীহির আয়োজনে বালুবাড়ী মহিলা বহুমুখী শিক্ষাকেন্দ্রের সভাকক্ষে ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন হেল্প এইজ ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর সহযোগীতায় প্রবীণ অধিকার বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের নিয়ে এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন দিনাজপুর, ফুলবাড়ী,  বিরামপুরের ৩০ জন সাংবাদিক গণ। প্রবীণ বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের করণীয় শীর্ষক কর্মশালাটি পরিচালনা করেন প্রকল্পের দাতা সংস্থা হেল্প এইজ ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর প্রকল্প সমন্বয়ক বেলায়েত হোসেন। কর্মশালায় প্রবীণ অধিকার সুরক্ষায় বিভিন্ন গ্র“প ওয়ার্ক ও আলোচনা করা হয়। এতে পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় ভাবে প্রবীণদের প্রতি বৈষম্য-অবহেলা, নির্যাতন বন্ধ ও গণমাধ্যমে তাদের অধিকার সুরক্ষায় কিভাবে সচেতনতা মূলক সংবাদ উপস্থাপন করা যায় তা নিয়ে আলোচনা করা হয়। এছাড়া সাংবাদিকরা এই প্রকল্পের সাথে সম্পৃক্ত অউঅ (এইজ ডিমান্ড এ্যাকশন) ক্যাম্পেইন প্রবীণ অধিকার সুরক্ষায় তৃণমূল সাংস্কৃতিক শিল্পীদের সম্পৃক্ততা এবং এই ক্ষেত্রে তৃণমূল সাংস্কৃতিক শিল্পী ও সাংবাদিকদের মেলবন্ধন নিয়ে আলোচনা করা হয়। কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন বহুব্রীহি সংস্থার নির্বাহী পরিচালক জাকির হোসেন, হেল্প এইজ ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর প্রকল্প অফিসার পবিত্রা মান্দা, প্রকল্পের জেলা সমন্বয়কারী আখিদুজ্জামান, মিডিয়া এন্ড ক্যাম্পেইন অফিসার ওয়াহিদুল ইসলাম ডিফেন্স, সোস্যাল মবিলাইজেশন অফিসার লুৎফর রহমান বাবু প্রমুখ। কর্মশালায় বক্তারা বলেন বাংলাদেশ সরকার প্রবীণ নীতিমালা ২০১৩ গেজেট আকারে প্রকাশ করেছে। এই নীতিমালা বাস্তবায়ন ও তাদের বিভিন্ন ইস্যু প্রচারণায় গণমাধ্যম কর্মীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। সমাজে প্রবীণদের সরাসরি অংশগ্রহণ নিশ্চিত ও জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে গণমাধ্যম কার্যকারি প্রচারণা চালাতে পারে। প্রবীণদের জন্য আন্তর্জাতিক আইনে জাতি সংঘ সনদ প্রণীত করা ও বাস্তবায়নে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারে গণমাধ্যম কর্মীরা। বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরাম এর দেয়া তথ্য অনুযায়ী ২০৩০ ও ২০৫০ সালে বাংলাদেশে প্রবীণের সংখ্যা দাঁড়াবে ১২ ও  ২২ শতাংশ। ২০৪৪ সালে প্রবীণ জনগোষ্ঠীর সংখ্যা কমবয়সী জনগোষ্ঠীকে ছাড়িয়ে যাবে।

Spread the love