বুধবার ১৭ অগাস্ট ২০২২ ২রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ী এখন আর চোখে পড়ে না

দিনাজপুর প্রতিনিধি: ‘‘আমার গরুর গাড়ীতে বউ সাজিয়ে ধুত্তুর ধুত্তুর ধুত্তুর ধু সানাই বাজিয়ে যাবো তোমায় শ্বশুর বাড়ী নিয়ে’’ জনপ্রিয় এই গানটি এখনও শোনা গেলেও দিনাজপুরে গরুর গাড়ীতে বউ সাজিয়ে নিয়ে যাওয়া এখন আর চোখে পড়ে না ।

 

২০ থেকে ২৫ বছর আগেও লক্ষ্য করা গেছে গরুর গাড়ী ছাড়া বিয়ের কনে ও বরযাত্রীদের যাতায়াত কল্পনাই করা যেত না। বিয়েতে গরুর গাড়ীর ব্যবহার গ্রামবাংলার একটি অন্যতম ঐতিহ্য। এ ছাড়া এ অঞ্চলের এক এলাকা হতে অন্য এলাকার হাট-বাজারে পণ্য বহনে একমাত্র ভরসা ছিল গরুর গাড়ী। ফসল ঘরে তোলা বা বাজারজাতকরণের জন্য।জমির ধান কাটার পর সেই ধান আনা হতো গরুর গাড়ীতে। ২০ থেকে ২৫ বছর আগেও গ্রামবাংলায় কৃষকের ঘরে ঘরে শোভা পেত নানা ডিজাইনের গরুর গাড়ী। এসব গরুর গাড়ী অন্যদের মালামাল পরিববণের জন্য ভাড়াও দিত।

 

যুগের পরিবর্তনে মানুষজন গরুর গাড়ীর ব্যবহার বাদ দিয়ে এখন ওই একই কাজে ব্যবহার করছে রিক্সা, ভ্যান, অটোরিক্সা, সিএনজি, ভটভটি, নছিমন-করিমন, মাইক্রো, কার ও বাস-ট্রাকসহ ইঞ্জিনচালিত নানান বাহন।

 

অতীত সময়ে গ্রাম বাংলার মানুষের কাছে নতুন ধান কাটার নবান্নের উৎসবের সময় গরুর গাড়ীর প্রতিযোগিতার মানে নির্মল আনন্দের উপকরণ। কার গাড়ী আগে যাবে এই প্রতিযোগিতা হত খোলা মাঠে। এই খেলাটিও হারিয়ে গেছে কালের আবর্তে।

 

আমার ছোটবেলায় চাচা, মামা, ফুফুদের বিয়ের সময় দেখেছি বর-কনে উভয় পক্ষই গরুর গলায় ঘন্টা লাগিয়ে টোপর উঠিয়ে নানা রঙে গরু ও গাড়ী সাজিয়ে গরুর গলায় ঘুগরা ও ফুলের মালা পরিয়ে বর-কনে আনা নেয়া করতো। গরুর গলার ঘুগরার বাজনা আর সারিবদ্ধ গরুরগাড়ী সে এক অপরূপ শোভা। তা দেখতে গ্রামের নারী-পুরুষরা বাড়ী থেকে বেরিয়ে আসতো রাস্তার ধারে।এমন দৃশ্যের কথা এখন ভাবাই যায় না।

 

বাংলা নববর্ষ এলেই এদেশের মানুষ নিজেদের বাঙালি প্রমাণ করার জন্য গ্রামীণ জীবনের নানা অনুসঙ্গ নিয়ে মেতে ওঠেন। তখন বাংলা নববর্ষ বরণ শোভাযাত্রায় কিছু গরুর গাড়ি দেখা যায়। কালের আবর্তে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ী হারিয়ে যাচ্ছে । এখন আমাদের প্রবীণদের কাছে এসব শুধুই স্মৃতি। দ্রুত বয়ে চলা সময়ের সাথে তাল মেলাতে গিয়ে গ্রামীণ ঐতিহ্য ভুলে এখন গ্রাম-বাংলার মানুষজনও হয়ে যাচ্ছেন যান্ত্রিক। ।এ কারণে শহরের ছেলে-মেয়েরা দূরের কথা, বর্তমানে গ্রামের অনেক ছেলে-মেয়েরাও গরুর গাড়ী শব্দটির সাথে পরিচিত নয়। ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে গরুর গাড়ী যাদুঘরে গিয়ে দেখতে হবে।

 

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email