শুক্রবার ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৬৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

জিন্নাত হোসেন, ষ্টাফ রিপোর্টার,: দিনাজপুর শহর ছাত্রলীগের উদ্যোগে শীত ও বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৬৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালী ও ছাত্র সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৬৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ৩ জানুয়ারি শনিবার দুপুরে দিনাজপুর শহর ছাত্রলীগের উদ্যোগে শহরের রায়সাহেব বাড়ী মাঠ প্রাঙ্গন থেকে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। বৃষ্টিটি ভিজে শোভাযাত্রয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জাতীয় পতাকা, দলীয় পতাকা, ব্যানার-ফেস্টুন বহনসহ ঢাক-ঢোল-মাদল বাজিয়ে ও সানাইয়ের সুর এবং আদিবাসী ছাত্র-ছাত্রীদের নৃত্য পরিবেশনা দিনাজপুর শহরবাসীকে মুখোরিত করে তুলে।

দিনাজপুর শহর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক হারুন-উর-রশিদ রায়হান এর নেতৃত্বে র‌্যালীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চন, বিশেষ অতিথি সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মোঃ মমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মানিক বসাক, দিনাজপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আবু ইবনে রজব, সাধারন সম্পাদক জাকারিয়া জাকির, দিনাজপুর শহর স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক শাহ মোঃ রেজওয়ান-উর-রহমান পলাশ, দিনাজপুর জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম অহবায়ক সাদিকুর রহমান বিপ­বসহ দিনাজপুর শহর ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীবৃন্দ। র‌্যালী শেষে শহর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক হারুন-উর-রশিদ রায়হান এর সভাপতিত্বে সমবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দিনাজপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চন বলেছেন, অতিতে এদেশে বিএনপি-জামাত জোট আন্দোলনের নামে সারা দেশে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রীষ্টানসহ মুক্তিযুদ্ধের মানুষদের উপর যে আঘাত করেছে সে ঘটনাছিল বাঙ্গালির চেতনার উপর আঘাত। বাংলাদেশের সংস্কৃতিতে তারা আঘাত করেছিল। রাজনীতির নামে বিএনপি-জামাত আগুন দিয়ে জীবন্ত মানুষ হত্যা করেছে। রাজনীতির নামে তারা অতিতে দেশে অরাজকতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করে ব্যাপক ধ্বংসযোগ্য কর্মকান্ড পরিচালনা করেছে। ভবিষ্যতে রাজনীতির নামে দেশে আর কোন ধ্বংসযোগ্য কর্মকান্ড পরিচালনা করতে না পারে এ ব্যাপারে ছাত্রলীগের প্রতিটি স্তরের নেতাকর্মীকে যারা বাংলাদেশের সংস্কৃতিকর উপর আঘাত করার চেষ্টা করবে তাদের প্রতিহত করতে হবে।

Spread the love