বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে বিশ্ব পানি দিবস উদযাপন উপলক্ষে সিম্পোজিয়াম

কাশী কুমার দাস,স্টাফ রিপোর্টার : ‘‘পানি এবং টেকসই উন্নয়ন’’- এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ২২ মার্চ বিশ্ব পানি দিবস-২০১৫ উদযাপন উপলক্ষে এনজিও ফোরাম ফর পাবলিক হেল্থ দিনাজপুর আঞ্চলিক অফিস আয়োজিত এবং ইউনিটি ফর এনজিওস দিনাজপুর এর সহযোগিতায় আঞ্চলিক অফিস হলরুমে টেকসই উন্নয়নে পানির ভূমিকাঃ স্থানীয় প্রেক্ষিত শীর্ষক সিম্পোজিয়াম অনুষ্ঠিত হয়।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর দিনাজপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুজার মোঃ মাছউদার রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ দিনাজপুরের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (উপ-সচিব) সত্যেন্দ্র কুমার সরকার।

 

বিশেষ অতিথি ও আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন ইউনিটি ফর এনজিও’স দিনাজপুরের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহাদাৎ হোসেন শাহ্ ও মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড দিনাজপুরের উপ-সচিব ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন এনজিও ফোরাম ফর পাবলিক হেলথ এর আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক রাশেদুল হক নাসিম। মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর দিনাজপুরের সহকারী প্রকৌশলী মোঃ সায়হান আলী। মুক্ত আলোচনা করেন রোলেন্ড গোমেজ, তপন কুমার সাহা, মোঃ মোজাফ্ফর হোসনে, উম্মে নাহার, আব্দুস সালাম, আফসার আলী, সেলিনা হক, ফরিদা বেগম, জাকির হোসেন, মতিউর রহমান, ইয়াকুব আলী ও সত্যেন্দ্র নাথ রায়।

 

সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন এনজিও ফোরাম এর ফিল্ড প্রোগ্রাম ফেসিলিটেটর (পিওয়াস প্রকল্প) এর মাইনুল হাসান তুষার। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন এনজিও ফোরামের প্রোগ্রাম ফেসিলিটেটর রেজাউল করিম ও প্রকৌঃ মোঃ শাহাদাৎ হোসেন।

 

বক্তারা বলেন উন্নত জনস্বাস্থ্য সেবা ও নিরাপদ পানি নিশ্চিতকরণ ব্যতিত টেকসই উন্নয়নের লক্ষোগুলো অর্জন করার অসম্ভব। সু-স্বাস্থ্য নিশ্চিত করার জন্য পর্যাপ্ত পানির কোন বিকল্প নেই। মানব শরীরের চাহিদা মেটানো পানির ব্যবহার অপরিসীম। পানি ও শক্তি দুটোই অমূল্য সম্পদ ও একটি অন্যটির পরিপুরক। টেকসই উন্নয়নের লক্ষোগুলা অর্জনে দুটির মাধ্য ভারসাম্য রক্ষা করাই উন্নয়নের বড় চ্যালেঞ্জ। সভায় দিনাজপুর শহরের ঘাগড়া ক্যানেলটি সংস্কার ও দখলমুক্ত করার ব্যাপারে জরুরীভাবে উদ্যোগ গ্রহণের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।

Spread the love