শনিবার ২ মার্চ ২০২৪ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে মক্কা ট্রান্সপোর্ট কোম্পানীর বেপরোয়া সার্ভিসের দরুন অল্পের জন্য বেঁচে গেল নানা-নাতনী

আব্দুর রাজ্জাক : দিনাজপুরে মক্কা ট্রান্সপোর্ট কোম্পানীর বেপরোয়া সার্ভিসের দরুন অল্পের জন্য বেঁচে গেল নানানাতনী৷

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক ১১টায় দিনাজপুর শহরের গণেশতলাস্থ মক্কা ট্রান্সপোর্ট কোম্পানীর লোহার বীমার সা ধাক্কা লেগে মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় অল্পের জন্য বেঁচে যায় নানাসহ স্কুল পড়ুয়া নাতনী৷ জানা গেছে, শহরের বালুয়াডাঙ্গা নিবাসী ও স্টেশন রোডস্থ আয়েশা ভ্যারাইটিজ স্টোরের স্বত্ত্বাধিকারী মো. এনামুল হক তাঁর নাতনী সেন্ট যোসেফ স্কুলের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী তাসনিম ই জান্নাত কে স্কুল শেষে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ীতে যাচ্ছিল৷ যাওয়ার সময় গণেশতলাস্থ মক্কা ট্রান্সপোর্ট কোম্পানীর বাহন লোহার বীম সম্বলিত দুইটি ভ্যান কোন সিগন্যাল ছাড়াই রাস্তা বন্ধ করে ট্রান্সপোর্টের প্রবেশমুখে ঢুকতে গেলে মোটরসাইকেলের সাথে ধাক্কা লাগে বলে প্রত্যক্ষদর্শীসহ মোটরসাইকেল চালক এনামুল হক জানান৷ তিনি আরও জানান, লোহার বীমের সাথে ধাক্কা লাগার পর তিনি নাতনীসহ মোটর সাইকেলটিকে একটি কার্পেটের দোকানের সামনে থাকা কাপড়ের স্তুপের সাথে লাগালে পড়ে যায়৷ এতে নানানাতনী সামান্য আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেলেও লোহার বীমের সাথে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেলটির তেলের ট্যাংকি সম্পূর্ণ দুমড়েমুচড়ে যায় বলে প্রত্যক্ষদর্শী ও চালক জানান৷

এ ব্যাপারে গণেশতলানিমতলা রোডের ব্যবসায়ীরা জানান, মক্কা ট্রান্সপোর্ট কোম্পানী ও মক্কা ট্রান্সপোর্ট এজেন্সীর বেপরোয়া সার্ভিসের কারনে অহরহ দূর্ঘটনা ঘটছে৷ তাদের ভারী যানবাহনসহ মালামাল সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টার মধ্যে শহরের ব্যস্ততম রোডটি ব্যবহার করায় দুর্ঘটনায় পড়তে হচ্ছে সবসময়৷ এ ব্যাপারে ট্রাফিক পুলিশের সহায়তা তো দুরের কথা, উল্টো তারাই ট্রান্সপোর্টে এসে উত্কোচ নিয়ে তাদের সহায়তা করছে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা জানান৷ ব্যবসায়ীরা ব্যস্ততম এলাকা হতে ট্রান্সপোর্টটি সরিয়ে অন্যত্র পরিচালনার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন৷

এ ব্যাপারে সরেজমিনে মক্কা ট্রান্সপোর্ট কোম্পানীর গণেশতলা শাখার ম্যানেজার মোহাম্মদ শফির নিকট গেলে তাঁকে পাওয়া যায়নি৷ কিন্তু মক্কা ট্রান্সপোর্ট এজেন্সীর ম্যানেজার আবুল কালাম আজাদের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, মালামালসহ ট্রাক সকাল আনুমানিক ১০টায় পৌছেছে তাদের ট্রান্সপোর্টে৷ প্রায়ই দিনের মধ্যে ট্রাকসহ লরি প্রবেশ করে বলে তিনি স্বীকার করেছেন৷ উক্ত সময় মক্কা ট্রান্সপোর্ট এজেন্সীতে অবস্থানরত ট্রাফিক পুলিশ শহিদুল ইসলামের নিকট তাঁর পন্টে জানতে চাইলে গণেশতলা (মডার্ণ মোড়) মোড় বলে তিনি জানান৷ দূর্ঘটনার বিষয়টি ট্রাফিক সার্জেন্ট বা উর্দ্ধতন কর্মকর্তাকে জানানো হয়নি বলেও তিনি জানান৷ এছাড়া কোন অফিসার বর্তমানে দায়িত্বে আছেন, ট্রাফিক পুলিশ শহিদুল ইসলাম জানেন না বলে দাবী করেন৷ ট্রান্সপোর্ট থেকে তাকে উত্কোচ দেয়া হয় বলেও তিনি স্বীকার করেন৷

Spread the love