সোমবার ২২ এপ্রিল ২০২৪ ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে সাহিত্যের নামে চলছে চাঁদাবাজী।

বেলাল উদ্দিনঃ দিনাজপুরে কিছু মৌসুমী সাহিত্য ব্যবসায়ীরা চষে বেড়াচ্ছে জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন অফিস-আদালত, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে। এরা রীতিমত এলাকায় আতংক সৃষ্টি করলেও এদের বিরুদ্ধে প্রশাসন কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করছেন না। ফলে সাহিত্যের নামে চাঁদাবাজী করে লেখক ও সাহিত্যকে কলঙ্কিত করছে।

 

প্রতিবছর স্বাধীনতা দিবস, ভাষা দিবস ও বিশেষ দিবসকে টার্গেট করে এরা বিভিন্ন কবিতা, গল্প, চটিবই কিংবা ম্যাগাজিন প্রকাশ করে থাকে। এটাকে পুঁজি করে বিভিন্ন অফিস, আদালত, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে গিয়ে একটি বই ধরিয়ে দেয় আর এর বিনিময়ে ১শ থেকে ৫শত টাকা দাবী করে, না দিলে এরা উদ্ধত আচরণ করে, এমনকি দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। বিভিন্ন বই ও পত্রিকা থেকে নামীধামী লেখকের লেখা চুরি করে তারা প্রকাশ করে। এতে লেখকের অনুমতি কিংবা প্রশাসনের অনুমতি না নিয়েই লেখাগুলো প্রকাশ করে। বইয়ের কভার পরিবর্তন করে একই লেখা বারবার প্রকাশ করে থাকে। প্রেক্ষাপট অনুপোযোগী লেখা লেখকের অনুমতি ছাড়াই প্রকাশ করায় লেখকরা অনেকসময় বেকায়দায় পড়ে। এ ধরনের বই বা সাহিত্য ব্যবসায়ীর সংখ্যা দিনাজপুরের শতাধিক। দিনাজপুরের অন্যতম সাহিত্যিক বাসুদেব শীল বলেন, এ ধরনের মৌসুমী সাহিত্যিকরা সাহিত্য অঙ্গনকে কলঙ্কিত করছে এদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য দিনাজপুরের সকল সাহিত্যিককে বিশেষ সভার আয়োজন করা উচিত। অন্যদিকে সাহিত্য চক্র-এর সভাপতি কবি ও সাহিত্যিক মোঃ বেলাল উদ্দিন এই বই ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের সাহায্য কামনা করেছেন।

Spread the love