রবিবার ২ অক্টোবর ২০২২ ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুর প্রেসক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা

Dinajpur Press Clabদিনাজপুর প্রতিনিধি : বৃহস্পতিবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের বাংলা ১৪২০ সনের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় দিনাজপুর প্রেসক্লাব এর ৩২ তম বার্ষিক সাধারণ সভার উদ্বোধনী অধিবেশন শুরু হয় দিনাজপুর সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি ইদ্রিস আলীর সভাপতিত্বে।

বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি কামরুল হুদা হেলাল, সহ-সভাপতি এ্যাডঃ মোঃ আমিনুল হক পুতুল, দিনাজপুর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আজহারুল আজাদ জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ফুলাল, টিভি রিপোর্টার্স এ্যাসোসিয়েশনের সদস্য সচিব শাহ আলম শাহী, ফটো জার্নালিষ্ট এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি জিন্নাত হোসেন এবং দিনাজপুর প্রেসক্লাবের একমাত্র নারী সদস্য তনুজা শারমিন তনু। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন প্রেসক্লাবের নির্বাহী কমিটির সদস্য শামীম রেজা এবং গীতা পাঠ করেন মুকুল চ্যাটার্জী।

সাধারণ সভার মূল পর্ব শুরু হয় প্রেসক্লাবের সভাপতি চিত্ত ঘোষের সভাপতিত্বে। সভায় সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল বাংলা ১৪২০ সনের বার্ষিক প্রতিবেদন ও কোষাধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম ফুলাল আর্থিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন।

সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল তার প্রতিবেদনে সাংবাদিক সমাজের ঐক্য, সংহতি ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, সাম্প্রতিক কালে PRESS লেখা ষ্টিকার লাগিয়ে অচেনা লোকজন কর্তৃক ব্যাপক হারে সাইকেল, মোটরসাইকেল চালাতে দেখা যায়। এধরনের ভূয়া সাংবাদিক প্রকৃত সাংবাদিকদের মর্যাদা ক্ষুন্ন করে যাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট সকলের সজাগ দৃষ্টি রাখা দরকার। রফিকুল ইসলাম ফুলাল আর্থিক প্রতিবেদনে প্রায় ১০ লাখ টাকার আয় ও ব্যয়ের হিসাব দেন। এছাড়া প্রেসক্লাবের নির্মাণ কাজের আয় ও ব্যয় আলাদা ভাবে উপস্থাপন করেন।

প্রতিবেদন ২টির উপর আলোচনায় অংশ নেন ক্লাবের সাধারণ সদস্য ইদ্রিস আলী, সাজেদুর রহমান শিলু, মোর্শেদুর রহমান, আবুল কাশেম, মুকুল চ্যাটার্জী, রুস্তম আলী মন্ডল প্রমুখ। সাধারণ সভায় নির্বাহী পরিষদের কর্মকর্তাদের মধ্যে রতন সিং, হুমায়ুন কবির, আসাদুল্লাহ সরকার, রিয়াজুল ইসলাম, আবু বকর সিদ্দিকসহ অন্যান্য সাধারণ সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন। সভায় ব্যাপক আলোচনা শেষে বার্ষিক ও আর্থিক প্রতিবেদন অনুমোদন করা হয়।

সভার শুরুতে সাংবাদিকতার বাতিঘর আ হ ম আবদুল বারী, এবিএম মুসা, গিয়াস কামাল চৌধুরী, কেজি মুস্তফাসহ সাংবাদিক, সাহিত্যিক ও রাজনৈতিক বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ ও তাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

সভাপতির বক্তব্যে চিত্ত ঘোষ সকল প্রকার ভূল বুঝাবুঝি, মান অভিমান ভূলে সাংবাদিকদেরকে সংহতি জোরদার করার তাগিদ দেন। তিনি বলেন, সাংবাদিকরা সমাজকে আলোর পথ দেখাবে। কিন্তু অনেক সময় সাংবাদিকদের ভিন্ন ধর্মী আচরণের কারণে ভূল বুঝাবুঝির সৃষ্টি হয়। এই অবস্থা থেকে মুক্ত থাকার জন্য সকলের প্রতি তিনি অনুরোধ জানান।

তিনি ঘোষনা দেন যে, ব্র্যাক এ্যাওয়ার্ড এর অংশ হিসেবে তিনি যে ১৫ হাজার টাকা পেয়েছেন তা দিনাজপুরের ২ সাংবাদিকের সন্তানের শিক্ষার জন্য অনুদান দিবেন।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email