মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দুই রেজিষ্টারের কারণে দিনাজপুর সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে জমি রেজিষ্ট্রি বন্ধ

দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুর সদর সাব রেজিষ্ট্রী অফিসে একই সময় দুই জন সাব রেজিষ্টার অবস্থান করায় দলিল রেজিষ্ট্রি বন্ধ হয়ে গেছে।

গত রোববার থেকে দলিল রেজিষ্ট্রি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সাধারণ সানুষের ভোগান্তি  বেড়ে গেছে। সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব।

এদিকে দুই রেজিষ্ট্রারের দ্বন্দ্বের অবসান না হওয়া পর্যন্ত গতকাল দিনাজপুর দলিল লেখক সমিতি দলিল কোন উপস্থান না করার সিদ্ধামত্ম নিয়েছে।

জানা গেছে, দিনাজপুর সদর সাব রেজিষ্ট্রী অফিসে সাব রেজিষ্ট্রার হিসাবে দায়িত্বে রয়েছেন মনিরুল হক সরকার। তিনি প্রায় ৩ বছর যাবত দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। সম্প্রতি সময় তাকে কুড়িগ্রাম জেলার সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে বদলী করা হয়। আর রংপুর সদর সাবরেজিষ্ট্রারকে দিনাজপুর সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে বদলী করা হয়। সে অনুযায়ী গত ১৬ জানুয়ারী রেজিষ্ট্রার মনিরুল হক সরকারের শেষ কর্ম দিবস ছিল। কিন্তু তিনি তার নতুন কর্মস্থলে না গিয়ে দিনাজপুর সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসেই দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

এদিকে নতুন সাব রেজিষ্টার হিসাবে দিনাজপুর সদর সাব রেজিষ্ট্রার অফিসে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে সাব রেজিষ্টার বজলুর রহমানকে। বজলুর রহমান গত রোববার দায়িত্ব গ্রহন করতে এসে যোগদান পত্র জমা দেন জেলা রেজিষ্টারের কাছে। জেলা রেজিষ্টার যোগদানপত্র গ্রহন করলেও  সাব রেজিষ্টার মনিরুল হক সরকার দায়িত্ব না দিয়ে জানান তিনি আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবে।  দায়িত্ব না পেয়ে নতুন সাব রেজিষ্টার বজলুর রহমান দীর্ঘ সময় অফিসে অবস্থান করে অফিসের বাইরে চলে জান। একই পদে দুই জন সাব রেজিষ্টার অবস্থান করায় রেজিষ্ট্রী অফিসে তোলপাড় শুরু হয়ে যায়।

এই ঘটনায় দলিল লেখকরা পড়ে যান বিপাকে। কারন মনিরুল হক সরকার কোন দলিলে স্বাক্ষর করতে পারবেন না। কারন ১৬ জানুয়ারী তার দায়িত্ব শেষ হয়ে গেছে। মনিরুল হক সরকার কোন দলিলে স্বাক্ষর করলে তা অবৈধ হবে বলে দলিল লেখকরা জানান।

এব্যাপারে মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, আমার বদলী হয়েছে তবে আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করতে অনুমতি পেয়েছি। এসময় তার কাছে আদেশের কপি দেখতে চাইলে তিনি তা দেখাতে পারেননি। তিনি বলেন আমাকে মৌখিক নির্দেশ দেয়া হয়েছে। লিখিত কোন আদেশ আসেনি।

যোগদান করতে আসা  নতুন সাব রেজিষ্ট্রার বজলুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, আমি যোগদান করতে কর্তৃপক্ষ যথাযথ আদেশ নিয়ে এসেছি। কিন্তু তিনি আমাকে দায়িত্ব দিচ্ছেন না। মনিরুল হক সরকার কোন দলিলেও স্বাক্ষর করতে পারবে না। শুধু মাত্র জটিলতা সৃষ্টি করছেন।

এব্যাপারে জেলা রেজিষ্টার রনজিৎ কুমার সিং সাংবাদিকদের জানান, লিখিত আদেশ না আসা পর্যন্ত মনিরুল হক সরকার কোন দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না। বর্তমানে যে ভাবে অবস্থান করছেন তা সম্পুর্ন অবৈধ। দায়িত্ব বুঝিয়ে না দিয়ে তিনি ভুল করছেন।

এ নিয়ে দিনাজপুর দলিল লেখক সমিতির সভাপতি আফানুল্ল্যা সরকার ও সাধারণ সম্পাদক এ কে এম রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, যোগদান ও বদলী সমস্যার সমাধান না হলে আমরা দলিল লেখকরা কোন দলিল রেজিষ্ট্রির জন্য উত্থ্থাপন করবনা। কারণ কে স্বাক্ষর করলে বৈধ আর কে স্বাক্ষর করলে অবৈধ তা নিয়ে আমরা জমি রেজিষ্ট্রি করে নিজে ও জমির ক্রেতা-বিক্রেতাকে বিপদে ফেলতে চইনা। তবে নতুন রেজিষ্টারকে যোগদান করতে দেয়া উচিৎ।

এদিকে কর্মকর্তাদের কারনে শত শত জমি ক্রেতা- বিক্রেতা দিনভর বসে থেকে ফিরে গেছেন। হয়রানী হচ্ছে দলিল লেখক ও কর্মচারীরা।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email