রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দূর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহ উপলক্ষে মানববন্ধন কর্মসূচীতে জেলা প্রশাসক

কাশী কুমার দাস,স্টাফ রিপোর্টার : দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজী বলেছেন, প্রতিটি মানুষের খেয়ে-পড়ে বেঁচে থাকার অধিকার আছে৷ অথচ দূর্নীতির কারণে এসব মানুষ আজ পদে পদে হচ্ছে নিগৃহীত ও বঞ্চিত৷ একমাত্র দূর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশই পারে অধিকার বঞ্চিত মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে৷ দেশে এখনো প্রাতিষ্ঠানিকভাবে দূর্নীতি হচ্ছে৷ যার ফলে জাতি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে৷ দেশের উন্নয়নে বড় বাধাই হচ্ছে দূর্নীতি৷ তাই দূর্নীতি প্রতিরোধে সকলকে স্বোচ্চার ও সচেতন করতে হবে৷

“সবাই মিলে শপথ করি-দূর্নীতিবাজদের ঘৃণা করি”- এবারের প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে ২৬ মার্চ – ১ এপ্রিল-১৫ দূর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষে জেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি দিনাজপুর এর আয়োজনে এবং দূর্নীতি দমন কমিশন, সমন্বিত জেলা কার্যালয় দিনাজপুর এর সহযোগিতায় জিলা স্কুল অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণী, শপথপাঠ বাক্য ৠালী ও মানববন্ধন কর্মসূচীর উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথাগুলো বলেন৷ জেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি দিনাজপুর এর সভাপতি আলহাজ্ব মোকাদ্দাস হোসেন চৌধুরীরর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোঃ র“হুল আমিন৷ দুদক, সমিন্বিত জেলা কার্যালয় দিনাজপুরের উপ-পরিচালক মোঃ আব্দুল করিম, দিনাজপুর জেলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক মিসেস আখতারা পারভীন৷ স্বাগত বক্তব রাখেন জেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ শফিকুল ইসলাম৷ শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক মোঃ ফজলুর রহমান, ছাত্রী রেজওয়ান আরা রোজী, যুবলী হাই স্কুলের ছাত্র মোকলেছার রহমান, ছাত্রী নূরজাহান আক্তার ও সততা সংঘের সদস্য জেসিয়া জেরিন বর্ণা৷ দুদক উপ-পরিচালক মোঃ আব্দুল করিম বলেন, শিক্ষাখাতে এক বছরে দূর্নীতির কারণে অর্থিক ক্ষতির পরিমাণ ৬৭৯৬ কোটি টাকা৷ যা দিয়ে বারো হাজার প্রাইমারী স্কুল হতে পারত৷ চিকিত্সাখাতে দূর্নীতির কারণে এক বছরে আর্থিক ক্ষতি হয় ৬৭৯৬ কোটি টাকা৷ যা দিয়ে হতে পারত প্রায় ৮ হাজার হাসপাতাল৷ তাই সর্বোস্তরের মানুষকে সচেতন করতে হবে দূর্নীতির বিরুদ্ধে ৷ সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন জেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সহ-সভাপতি ও দূর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহ উদযাপন কমিটির আহবায়ক কানিজ ফাতেমা বেগম৷

 

Spread the love