শনিবার ১ অক্টোবর ২০২২ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দেশ প্রেমিক সশস্ত্রবাহিনীকে দেশ রক্ষায় সর্বদা প্রস্তুত থাকতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

Hasinaরবিবার সকালে সেনাবাহিনীর মেজর জেনারেল এবং তদুর্ধ কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণতান্ত্রিক ধারাকে সুসংহত করার জন্য সশস্ত্র বাহিনীকে যে কোনো হুমকি মোকাবেলায় সর্বদা সজাগ ও প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা এবং গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখার জন্য গত ৫ জানুয়ারি ১০ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই নির্বাচন সুষ্ঠু এবং সফলভাবে অনুষ্ঠিত করায় অন্যান্য নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে সেনাবাহিনীও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে। নির্বাচনকালীন সময়ে অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে দেশের সব জেলায় সেনাবাহিনীর উপস্থিতি জনমতে স্বস্তি এনে দিয়েছিল। জনগণ নির্ভয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে সক্ষম হয়েছে। এজন্য আমি সেনাবাহিনীর সকল সদস্যকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।
প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার একটি দক্ষ, আধুনিক ও শক্তিশালী সশস্ত্র বাহিনী গঠনে বদ্ধপরিকর। তাই যখনই আমরা সরকার গঠন করেছি তখনই সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়ন ও আধুনিকায়নে উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। আজ আমরা গর্ব করে বলতে পারি সশস্ত্র বাহিনীর যতো উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন সাধিত হয়েছে তা আওয়ামী লীগ সরকারের সময়েই হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেনাবাহিনীকে আরো কার্যক্ষম ও যুগোপযোগি করার লক্ষ্যে সেনাবাহিনীতে ৪৪টি অত্যাধুনিক মেইন ব্যাটল ট্যাঙ্ক, ১৩টি আর্মাড রিকভারী ভেহিকল, ১৮টি অত্যাধুনিক সেলফ প্রোপেলড গান সিস্টেম, ৫টি ইউপন লোকেটিং রাডার, ২টি গ্রাইন্ড সার্ভেলেন্ম রাডার, ১টি সাউন্ড রেঞ্জিং রাডার, ২১৩টি এন্টি ট্যাঙ্ক গাইডেড উইপন, ২৮৫টি এন্টি ট্যাঙ্ক উইপন, ৬টি মাল্টিপাল লঞ্চড রকেট সিস্টেম, ২৬০টি আর্মার্ড পার্সেনাল ক্যারিয়ার, ২২টি রিকোনাইসেন্স ভেহিক্যাল, ২টি হেলিকপ্টার এবং ২টি ইউটিলিটি বিমান ছাড়াও সিগন্যাল ও ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের জন্য অত্যাধুনিক সরঞ্জামাদি ক্রয় করা হয়েছে। এই অত্যাধুনিক সরঞ্জামাদি সংযোজনের পর সেনাবাহিনীর কার্যদক্ষতা এবং যুদ্ধোপযুক্ততা এবং সেনা সদস্যদের মনোবলও বহুলাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। সেনাবাহিনীতে নতুন সংযোজনকৃত অত্যাধুনিক সরঞ্জামাদি নিজস্ব সমর শক্তি বৃদ্ধির পাশাপাশি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে আরো পেশাগত দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালনে সহায়তা করবে। তাছাড়া রাশিয়া, চীন, সারবিয়া প্রভৃতি দেশ থেকে উল্লেখযোগ্য সামরিক সরঞ্জামাদি ক্রয়ের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধনি রয়েছে।

 

 

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email