বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নবাবগঞ্জে ঘাঁস বিক্রির হাট ঘাঁস বিক্রি করে সংসার চলে আদিবাসীদের

 

দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার আদিবাসীদের জীবন চলে ঘাঁস বিক্রি করে৷

 

প্রতিদিন বিকেলে আদিবাসীদের ঘাঁস বিক্রির করার জন্য ছুটে যায় উপজেলার আফতাবগঞ্জ হাটে৷

 

এই হাটে শতাধিক আদিবাসী প্রতিদিন মাঠ থেকে ঘাষ সংগ্রহ করে নিয়ে এসে বিক্রি করে৷ প্রতিদিন কমপক্ষে ৩০ হাজার টাকার ঘাস কেনা বেঁচা হয় এই হাটে৷

 

 

কুশদহ ইউনিয়নের খালিপপুর গ্রামে ছকিনা হেমরম জানান, এ সময় মাঠে কাজ না থাকায় আদিবাসীদের অলস সময় কাটাতে হচ্ছে৷ ফলে সংসারে কিছুটা হলেও অভাব অনটন দেখা দিয়েছে৷ এই অলস সময় তারা বন জঙ্গল থেকে বিভিন্ন ধরনের আলু, নদী ও খাল বিল থেকে সামুক ঝিনুক মাছ কাঁকড়া খাওয়ার জন্য সংগ্রহ করে থাকে৷পাশাপাশি তারা বাড়তী আয়ের জন্য মাঠ থেকে ঘাস সংগ্রহ করে আফতাবগঞ্জ হাটে নিয়ে এসে বিক্রি করে থাকে৷ এতে কিছুটা হলেও তারা সংসারের চাহিদা মেটাতে পারে৷

 

গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের সুমিতা মুরমু জানান, উপজেলার সিংহ ভাগ আদিবাসী কৃষি কাজে শ্রম বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করে৷ মাঠে কাজ না থাকায় সংসারের তাগিদে তারা হাট-বাজারে ঘাঁস বিক্রি করছে৷

 

 

জয়পুর ইউনিয়ন বিট টোলা গ্রামের মাজলি সরেনের জানান, তারা প্রতিদিন দিন আফতাবগঞ্জ হাটে গো-খাদ্য ঘাঁস বিক্রয় করে ২‘শ থেকে ৩‘শ টাকা রোজগার করে৷ যা দিয়ে তারা সংসার চালাচ্ছে৷

 

ঘাস কিনতে আসা আনিসুর রহমান কফিল উদ্দীন জানায়, মাঠে বোরো ধান থাকায় গরু মহিষ নিয়ে মাঠে চরানো সম্ভব নয়৷ তাই এই হাটে ঘাঁস কিনতে এসেছি৷ এখানে গো-খাদ্যের অনেক দাম৷

 

 

Spread the love