শনিবার ২ মার্চ ২০২৪ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নব্য অশুরদের নিধন করে বাসযোগ্য বাংলাদেশ বিনির্মানে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে

ফজিবর রহমান বাবু ॥ জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেছেন, বিজয়া পুনর্মিলনীতে কেবলমাত্র সনাতন ধর্মালম্বীরাই নয় সকল ধর্মের মানুষ এই মহামিলনে  অংশ গ্রহন করেন। বাঙ্গালীর হাজার বছরের ঐতিহ্যকে আমাদের লালন করতে হবে। নব্য অশুরদের নিধন করে বাসযোগ্য বাংলাদেশ বিনির্মানে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

২১ অক্টোবর শক্রবার  সকালে দিনাজপুর বীরগঞ্জ মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান প্রাঙ্গনে উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের আয়োজনে শারদীয় দূর্গোৎসবের বিজয়া পুনর্মিলনী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা গুলো বলেছেন।

এমপি গোপাল সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এই বাংলাদেশে মুসলিম, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টানসহ সকল ধর্মের মানুষের সমান অধিকার রয়েছে একথা উল্লেখ করে আরো বলেন, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সকল ধর্মালম্বি মানুষকে নিজ নিজ ধর্ম পালনে অবাধ স্বাধীনতার জন্যই নিজের জীবনকে উৎসর্গিত করেছিল। জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাধীনতার চেতনায় ‘ধর্ম যার যার উৎসব সবার’ তা নিশ্চিত করেছেন। তাই এখন সকল ধর্মের মানুষ ঈদ, পূজা, বড়দিন সম্মিলিত ভাবে পালন করছে। উৎসবে কোন বাঁধা নেই। আর বর্তমান সরকার হতদরিদ্র মানুষদের উৎসব পালনে সরকারি ভাবে সহায়তা প্রদান করছে।

উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র সাহা’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম সহকারী পুলিশ সুপার সুজন সরকার, বীরগঞ্জ থানার ওসি মো আবু আক্কাস আহম্মেদ, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার অধ্যাপক কালীপদ রায়, সেবায়েত নিত্যানন্দ সাহা, ুপৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক  অধ্যক্ষ মো. রফিকুল ইসলাম রফিক, মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠানের সভাপতি ও অংকুর কিন্ডার গার্ডেটেনের অধ্যক্ষ বাবুু  গিরীজা নাথ দাস।

এর আগে জাতীয় সঙ্গীতের তালে তালে জাতীয় ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করেন প্রধান অতিথি এমপি গোপাল। আলোচনা সভাটি সঞ্চালনা করেন উপজেলা দূর্গাপুজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যন গোপাল দেব শর্মা। পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

Spread the love