শনিবার ২১ মে ২০২২ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নাশকতাকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে : প্রধানমন্ত্রী

Pm02শনিবার দুপুরে গাইবান্ধা পৌঁছে সার্কিট হাউসে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার ঘটনায় আহত এবং নিহতদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন নাশকতাকারী কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।  ।

প্রধানমন্ত্রী বিকালে শাহ আবদুল হামিদ স্টেডিয়ামে ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে গোবিন্দগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, গাইবান্ধা টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনস্টিটিউট, প্রতিটি ১ হাজার মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন ৬টি খাদ্যগুদাম, সাঘাটা, পলাশবাড়ি ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ৩১ শয্যার হাসপাতাল ৫০ শয্যায় উন্নীত ও জেলায় ইপিআই স্টোরের উদ্বোধন করেন।

প্রধানমন্ত্রী পলাশবাড়ি ও ফুলছড়ি থানা ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমপ্লেক্স, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র, গাইবান্ধা কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং গাইবান্ধা শাহ আবদুল হামিদ স্টেডিয়ামের গ্যালারি সম্প্রসারণ, সুন্দরগঞ্জ-চিলমারী সড়কে তিস্তা নদীর ওপর ১ হাজার ৪৯০ মিটার পিসি গার্ডার সেতু এবং সাঘাটা উপজেলায় বোনারপাড়া ইউপি অফিস-রামনগর বাজার সড়কে কাটাখালি নদীর ওপর ৩৬০ মিটার পিসি গার্ডার সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর উন্মোচন করেন। পরে তিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক জনসভায় বক্তব্য রাখেন।

জনসভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, পাট ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী মির্জা আযম, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা  তারেক আজিজ, স্বরাষ্ট প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, সাবেক মন্ত্রী এমপি ফারুক খান, সাবেক মন্ত্রী এমপি ড. আব্দুর রাজ্জাক, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, গাইবান্ধার সাঘাটা-ফুলছড়ির এমপি অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া, গাইবান্ধা সদরের এমপি মাহাবুব আরা বেগম গিনি, পলাশবাড়ি-সাদুল্যাপুরের এমপি ডা: ইউনুস আলী সরকার, গোবিন্দগঞ্জের এমপি অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ, সুন্দরগঞ্জের এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন, সাবেক এমপি মনোয়ার হোসেন চৌধুরী, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন, এবং স্থানীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক, ফরহাদ আব্দুল্যাহ হারুন বাবলু, যুগ্ম সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন মন্ডল, রণজিৎ বকসী সুর্য, শাহ সারোয়ার কবির, অ্যাড. শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন, রেজাউল করিম রেজা, সাইফুল আলম সাকা, দীপক কুমার পাল, ছাত্রলীগ নেতা তাহমিদুর রহমান সিজু, ইউসুফ আলী জোয়ারদার প্রমুখ।

সকাল সাড়ে ১১টা থেকেই বিভিন্ন এলাকা থেকে ঢাক-ঢোল বাজিয়ে খন্ড খন্ড মিছিল করে এবং স্লোগান দিয়ে মানুষ গাইবান্ধার বিশাল এই স্টেডিয়াম মাঠে সমবেত হয়। জনসভায় স্টেডিয়াম মাঠ ও মাঠের ৩টি গ্যালারী কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে জনসভা স্থলটি রীতিমত জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email