বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নিউজিল্যান্ডকে বাংলাওয়াশ

ডেক্স  নিউজ: ওয়ানডে সিরিজে নিউজিল্যান্ডকে বাংলাওয়াশ করল টাইগাররা। চার বল বাকি থাকতেই বাংলাদেশ পৌঁছে যায় কাঙ্খিত বিজয়ে। এ যেন 49057এক অন্য বাংলাদেশ। বদলা নিতে পারল না কিউইরা। উল্টো আবারো হোয়াইটওয়াশ হলো তারা। এর আগে ২০১০ সালে বাংলাদেশের টাইগারদের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল তারা। এবার পর পর দুই ম্যাচে বাংলাদেশের কাছে হেরেও নিউজিল্যান্ডের আশা ছিল জয়ের। গড়েছিল ৩০৭ রানের পাহাড়ও। কিন্তু সে আশায় গুড়ে বালি হলো তাদের। তবে নিউজিল্যান্ডের ৩০৭ রানের পাহাড়টা বাংলাদেশের কাছে কম বড় ছিলনা। তাদের লক্ষ্য ছিল ৩০৮ রানের। ৩০৯ করে তবুও এগিয়ে গেল বাংলার টাইগাররা। খেলার শেষ দিকে এসে নাসির হোসেন ও সোহাগ গাজীর জোড় ৪৯.২ ওভারে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন। বাংলাদেশ জয় পায় চার উইকেটের ব্যবধানে। সাথে সাথে শুরু হয় নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা স্টেডিয়ামের দর্শকসহ সারাদেশের মানুষের জয় উল্লাস।
ওয়ানডে সিরিজে নিউজিল্যান্ডের বিপরীতে ৩০৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুভ সূচনা করেন স্বাগতিক দুই ওপেনার জিয়াউর রহমান ও শামসুর রহমান। ইনিংসের ১৯ ও ২০তম ওভারে টানা দুই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। মমিনুল হক ৩২ রান করে এন্টন ডেভিচিসের শিকার হওয়ার পরের ওভারেই দলীয় ১২৯ রানে আউট হয়েছেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমও। দুই রান করে নাথান ম্যাককুলামের শিকার হয়েছেন তিনি। এর আগে সাত ওভারে বাংলাদেশ ৬০ রান করে। কিন্তু ২০ বলে দুটি করে চার ও ছক্কায় ২২ রানে থামে জিয়াউরের ইনিংস। নিউজেল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করতে মাঠে নেমে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান নাঈম ইসলাম। তামিম ইকবালের বদলে নেমেছেন জিয়াউর রহমান। ২০ বলে ২২ রান করেছেন তিনি। তাতে ছয় ও চার দুটি করে।
জিয়ার আউটের পর ৩৩ বলে ৩২ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে গেছেন মুমিনুল। তারপর মুশফিক দ্রুত আউট হয়ে গেলেও তা বুঝতে দেননি নাঈম। শামসুরকে সাথে সচল রেখেছেন রানের চাকা। জয়ের জন্য চোয়ালবদ্ধ প্রতীজ্ঞা ব্যাটসম্যানরা যে করেছিলেন, তা সুস্পষ্ট হয়েছে এতেই।
৭৪ বলে ৬৩ রানের কার্যকর এক ইনিংস খেলে নাঈম আউট হয়ে বাংলাদেশের কপালে কিছুটা ভাজ পড়ে। কিন্তু ব্যাটের দ্যূতিতে মুহূর্তেই মুছে দেন নাসির ও পরীক্ষিত যোদ্ধা রিয়াদ। পঞ্চম উইকেটে এ দুজনের জুটি বাংলাদেশকে ভিড়িয়ে দিয়েছে স্বপ্ন- জয়ের মায়াবী বন্দরে; তবে নোঙর ফেলতে পারেনি। স্কুইপ প্যাডল করতে গিয়ে কিপারের হাতে ধরা পড়েছেন রিয়াদ। ১৩ বলে ১৬ রান করে আউট হয়েছেন তিনি।
ফলে শেষ কাজটি করার জন্য নামতে হয়েছে সোহাগ গাজীকে। নাসিরকে সাথে নিয়ে জয়ের তরীর নোঙর ফেলে তিনি পাহাড়সম প্রত্যাশার ভাড় কাঁধে নিয়ে লক্ষ্যে পোঁছান বাংলাদেশকে।
এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামে নিউজিল্যান্ড। ফতুল্লার খান সাহেব ওসমানি স্টেডিয়ামে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে সফরকারী দলটি পাঁচ উইকেট হারিয়ে ৩০৭ রান সংগ্রহ করে। সর্বোচ্চ ১০৭ রান সংগ্রহ করেন রস টেইলর।
বাংলাদেশের মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ দুটি উইকেট নেন। একটি করে উইকেট পেয়েছেন রুবেল হোসেন, সোহাগ গাজী ও আবদুর রাজ্জাক। এর মধ্যে টম ল্যাথামকে নিয়ে তার ৬৬ রানের জুটি অবশেষে ভাঙেন মাহমুদউল্লাহ। ৩৮ বলে আটটি চারে ৪৬ রানে শর্ট ফাইন লেগে দাঁড়িয়ে থাকা আব্দুর রাজ্জাকের তালুবন্দি হন ডেভচিচ। রাজ্জাক ও রুবেল হোসেনের কাছে ৪৪ রান যোগ করতে আরও দুটি উইকেট হারায় কিউইরা। ৩ রানে গ্রান্ট এলিয়টকে ফেরান রাজ্জাক, ৪৩ রানে রুবেলের কাছে থামে ল্যাথামের ইনিংস। কিন্তু রস টেলর ও কলিন মুনরোর ফিফটিতে ম্যাচ আবারও হাতছাড়া হয় বাংলাদেশের। দুজনের ১৩০ রানের জুটি বড় সংগ্রহ এনে দেয় সফরকারীদের। ৫৩ বলে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি হাঁকান মুনরো। শেষ পর্যন্ত এই জুটি ভেঙে ব্রেকথ্রু এনেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। ৮৫ রানে সাজঘরে ফেরেন মুনরো। কোরি এন্ডারসন (১) এসেই সোহাগ গাজীর শিকার হন। তবে টেলরের ব্যাটিংয়ে পথ থেকে বিচ্যুত হয়নি সফরকারীরা। দুই বল বাকি থাকতে ৯১ বলে আট চার ও তিন ছয়ে অষ্টম শতক হাঁকান তিনি। ৯৩ বলে নয় চার ও তিন ছয়ে ১০৭ রানে অপরাজিত ছিলেন টেলর। অপর প্রান্তে লুক রচি ১৩ রানে টিকে ছিলেন। বাংলাদেশের পক্ষে সবচেয়ে বেশি দুই উইকেট নেন মাহমুদউল্লাহ। একটি করে পান রুবেল, গাজী ও রাজ্জাক। একটি মাত্র পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ।
বিপরীতে করতে ব্যাট করতে নেমে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরলেন নাঈম ইসলাম। এনিয়ে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাঁচ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪৫ ওভারে ২৭৩ রান। এর আগে ৩০৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুভ সূচনা করেন স্বাগতিক দুই ওপেনার জিয়াউর রহমান ও শামসুর রহমান। ইনিংসের ১৯ ও ২০তম ওভারে টানা দুই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। মমিনুল হক ৩২ রান করে এন্টন ডেভিচিসের শিকার হওয়ার পরের ওভারেই দলীয় ১২৯ রানে আউট হয়েছেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমও। দুই রান করে নাথান ম্যাককুলামের শিকার হয়েছেন তিনি। এর আগে সাত ওভারে বাংলাদেশ ৬০ রান করে। কিন্তু ২০ বলে দুটি করে চার ও ছক্কায় ২২ রানে থামে জিয়াউরের ইনিংস।
এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামে নিউজিল্যান্ড। ফতুল্লার খান সাহেব ওসমানি স্টেডিয়ামে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে সফরকারী দলটি পাঁচ উইকেট হারিয়ে ৩০৭ রান সংগ্রহ করে। সর্বোচ্চ ১০৭ রান সংগ্রহ করেন রস টেইলর। বাংলাদেশের মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ দুটি উইকেট নেন। একটি করে উইকেট পেয়েছেন রুবেল হোসেন, সোহাগ গাজী ও আবদুর রাজ্জাক।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email