শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নিখোঁজ পুলিশ সদস্য সন্তানের খোঁজে মা এর সংবাদ সম্মেলন

রবিউল এহ্সান রিপন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: এক বছর থেকে পুলিশ সদস্য সন্তানের কোন খোঁজ না পাওয়ায়, প্রশাসনের পক্ষ হতে কোন সহযোগীতা না পাওয়ায়, মা মোছা: মনোয়ারা বেগম সংবাদ সম্মেলনের করে সন্তানকে ফিরে পেতে সহযোগীতা চেয়েছেন।

বুধবার ঠাকুরগাঁও শহরের কলেজপাড়ায় রিপোটার্স ইউনিটির কার্যালয়ে সন্তান ফিরে পেতে সংবাদ সম্মেলনে কান্নায় ভেঙ্গে পরেন মা।

নিখোঁজ পুলিশ কনস্টেবলের বাড়ী ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার জলগাঁও গ্রামে। সে মৃত সাইফুর রহমানের ছেলে। তিনি পুলিশ কনস্টেবলের নিয়োগ পেয়ে পঞ্চগড়ের আটোয়ারী থানায় যোগ দেন। সেখান থেকে অজ্ঞাত কারণে তাঁকে ক্লোজ করে পঞ্চগড় পুলিশ লাইনে পাঠায় উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ।
মা মনোয়ারা বেগম ও পুলিশ কনস্টেবল রাজিউর ইসলামের স্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ২৭/৮/২০২০ তারিখ রাজিউর রহমান পঞ্চগড় পুলিশ লাইন থেকে ৭ দিনের ছুটি নিয়ে বাসার উদ্দেশ্যে রাওনা হয়। তার পর থেকে রাজিউর এর কোন খবর পাওয়া যায় নাই। এই বিষয়ে পঞ্চগড় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে। তাছাড়াও পুলিশের বিভিন্ন উর্দ্ধতন কর্মমর্তাদের সাথে যোগাযোগ করা হলেও তারা কোন সমাধান দিতে পারে নাই। এমতাবস্থায় আমাদের পরিবার এবং রাজিউর এর সন্তানের ভবিষৎ অনিশ্চিত হয়ে গিয়েছে।

রাজিউর এর মা আরও বলেন, নীলফামারী জেলার গোয়েন্দা বিভাগের হাশিবুল ইসলামের সাথে আমার ছেলের সু-সম্পর্ক। তাই ছেলেকে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য তার সাথে যোগাযোগ করে হলে তিনি নিশ্চয়তা প্রদান করলেও এক বছরও খোঁজ মেলেনি রাজিউরের।

পুলিশ কনস্টেবলের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার বলেন, দীর্ঘ এক বছর থেকে আমার স্বামীর কোন খোঁজ নেই। ৩ বছরের ছেলে সন্তানকে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। কর্তৃপক্ষ তার বেতন ভাতা বন্ধ করে দিয়েছে। স্বামীকে না ফিরে পেলে অনাহারে রাস্তায় দাড়াতে হবে। স্বামীকে ফিরে পেতে পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে ঠাকুরগাঁও জেলার সকল প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা উস্থিত ছিলেন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email