বৃহস্পতিবার ৬ অক্টোবর ২০২২ ২১শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নির্বাচনী সহিংসতায় বীরগঞ্জে আরও একজনের মৃত্যু। সংঘর্ষ অব্যাহত

Birganj-Picবীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ বীরগঞ্জের গত রবিবার প্রতিরোধ, ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ, গুলি বর্ষন ও ব্যাপক সংঘর্ষ মধ্য দিয়ে দশম জাতীয় সংসদের ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। এ পর্যন্ত নিহত হয়েছে ২জন।

নির্বাচনী সহিংসতায় রবিবার সন্ধ্যায় দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেন উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের ভগির পাড়া গ্রামের মোঃ আবুল কালামের পুত্র মোঃ সালাউদ্দিন (১৭)।

সোমবার ভোরে রবিবারের সংঘর্ষে আহত শিবরামপুর ইউনিয়নের সাহাডুবি গ্রামের মোঃ আলিমুদ্দিনের পুত্র মোঃ আসাদুল্লাহ (১৮) দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। নিহতদের নিজেদের কর্মী বলে দাবী করেছেন ইসলামী ছাত্রশিবির।

এ দিকে উপজেলা বিভিন্ন এলাকার সোমবার নির্বাচনী পরবর্তী সংঘর্ষে খবর পাওয়া গেছে। এতে এখন পর্যন্ত পলাশবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম শাহ মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছেন। তার পা ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে এবং মটর সাইকেল পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ আবু জাফরের নেতৃত্বে যৌথ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামে সংঘর্ষ হয়েছে। তবে হতাহতের কোন সংবাদ পাওয়া যায়নি। সেখানে যৌথ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়াও বিভিন্ন এলাকায় অগ্নি সংযোগ, ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। মোহনপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ পলাশবাড়ী ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পদক নেতা মোঃ ইউসুফ আলীর বালাডাঙ্গী বাজারে সার-কীটনাশক দোকান ভাংচুর করে অগ্নিসংযোগ করেছে, নিজপাড়া ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ কর্মী মোঃ বক্কর আলী নয়াহাট বাজারের মুদি দোকান, দর্প নারায়ন ও সচিন রায়ের ঔষধের দোকানে অগ্নিসংযোগ করেছে।

এ দিকে নিহত শিবির কর্মী মোঃ সালাউদ্দিনের জানাজা গত সোমবার বিকেল সন্ধ্যায় টায় নিজগ্রামে অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে তাকে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হয় বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email