শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নৈশ্য প্রহরী কাম দপ্তরী নিয়োগে অনিয়ম : পীরগঞ্জে স্কুলে তালা-বিক্ষোভ

ঠাকুরগাওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার খটশিং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৈশ্য প্রহরী কাম দপ্তরী পদে উপজেলা প্রশাসন ঘুষের বিনিময়ে একজন চোরাকারবারী ও শিশু নির্যাতনকারীকে নিয়োগ দেওয়ার প্রতিবাদে বিদ্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী। সোমবার সাকালে এলাকাবাসী বিদ্যালয়ের সব কক্ষে তালা দিলে মাঠে খোলা আকাশের নিচেই চলে শিক্ষার্থীদের পাঠ দান। এ নিয়ে শিক্ষা বিভাগে তোলপাড় চলছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট দায়ের করা অভিযোগে জানা গেছে, পীরগঞ্জ উপজেলার খটশিং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৈশ্য প্রহরী কাম দপ্তরী পদে গত ১৮ ফেব্রুয়ারী উপজেলা পরিষদে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। নিয়োগ কমিটি ৩ সদস্যের প্যানেল করে নিয়োগ অনুমোদনকারী কতৃপক্ষ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট জমা দেন। নিয়োগকারী কতৃপক্ষ হাজীপুর ইউপি চেয়ারম্যান এর পক্ষ নিয়ে নিয়োগ পরীক্ষায় ১ম স্থান অর্জনকারী প্রার্থীকে বাদ দিয়ে খটশিংগা গ্রামের মহেন্দ্র কর্মকারের ছেলে চিহিৃত চোরাকারবারী ও মাদকসেবী সুনিল কর্মকারকে নিয়োগ দেয়ার চেষ্টা করেন। সুনিলে বিরুদ্ধে নানা অসামাজিক কার্যকলাপ সহ শিশু নির্যাতনের অভিযো করা হয়েছে। তাছাড়া সুনিল জয়নাল চেয়ারম্যানের বডিগার্ড হিসেবে কাজ করেন। তাকে নিয়োগ দেওয়া হলে বিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ বিঘিœত হওয়া সহ নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়বে। এ বিষয়ে এলাকাবাসী লিখিত অভিযোগ দায়ের করার পরও নিয়োগকারী কতৃপক্ষ রোববার ঐ সুনিলকেই নিয়োগ প্রদান করেন। এতে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে সোমবার বিদ্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দেন এবং বিক্ষোভ করেন। পরে উপজেলা প্রশাসনের আশ্বাসে তারা তালা খুলে দেন। এলঅকাবাসীর অভিযোগ ৫ লাখ টাকায় রফা দফার মাধ্যমে একজন চোরাকারবারী, মাদকসেবী ও ব্যবসায়ী এবং শিশু নির্যাতনকারীকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তারা এনিয়োগ বাতিলের দাবী জানান।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাব্বির আহম্মদ বলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্যের ডিও লেটারের প্রেক্ষিতে সুনিলকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।
স্থানীয় সংসদ সদস্য ইয়াসিন আলী জানান, ওই এলাকার চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীনের সুপারিশে তিনি সুরিলকে ডিও লেটার দিয়েছিলেন। ছেলেটিকে তিনি চেনেন না।