সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পঞ্চগড়ে চা পাতার নায্য মূল্যের দাবিতে সভা

Panch-Teaচা পাতা নায্য মূল্যের দাবিতে স্মল-টি র্গার্টেন ওনার্স এসোসিয়েশন পঞ্চগড় আজ বুধবার সকাল দশ টায় তেঁতুলিয়া, মাঝিপাড়ায় সভা ও র‌্যালী আয়োজন করেন। প্রায় শহস্্রাধীক ক্ষুদ্র চা চাষীর এই  প্রতিবাদ সমাবেশে নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশ স্মল টি গার্ডেন অনার্স এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক আব্দুল জব্বার। তিনি অভিযোগ করে বলেন, বাংলাদেশ চা বোর্ড ক্ষুদ্র চাষিদের কাছ থেকে ২০১৩ -২০১৪ অর্থবছরে সবুজ  চা পাতার ক্রয় মূল্য নির্ধারণ করেছে  দুরত্ব ভেদে পরিবহন খরচ ১.৫০ টাকা সহ ২৬.৫০ টাকা। কিন্তু জেলার তেতুলিয়া উপজেলায় অবস্থিত  গ্রীন কেয়ার টি কোম্পানী ও তেতঁলীয়া টি কোম্পানী কতিপয় অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজসে চা বোর্ডের নির্ধারিত মূল্য উপেক্ষা করে অকশন মার্কেটের অযুহাত দেখিয়ে ক্ষুদ্র চাষীদের কাছ থেকে ১৮ টাকা দরে সবুজ চা পাতা কেনার সিন্ধ্যান্ত গ্রহণ করে। এই সিদ্ধান্ত পঞ্চগড়ের চা শিল্পকে হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে। কয়েক হাজার ক্ষুদ্র চা চাষী গভীর বিপদের সম্মুক্ষিন।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, পঞ্চগড়ে ৬ টি কারখানার মধ্যে ৪টি চাবোর্ডের নির্ধারিত মুল্যে চা পাতা কিনছে। কিন্তু  গ্রীন কেয়ার টি কোম্পানী ও তেতঁলীয়া টি কোম্পানী দুটি সরকারি সিন্ধান্তের তোয়াক্কা না করে ক্ষুদ্র চা চাষেিদর চাপের মুখে কম টাকায় চা পাতা ক্রয় করছে।  একাধিকবার কোম্পানীর উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে  কোন লাভ হয়নি। পূর্ব ঘোষিত দামে চা পাতা না কিনলে পরবর্তীতে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষনা করা হবে। আরো বক্তব্য রাখেন, জাহাঙ্গীর মিয়া, কাজী মাহমুদুর রহমান ডাবলু ও আনিছুর রহমান চেয়ারম্যান।
তেতুঁলিয়া টি কম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও গ্রীন কেয়ার টি কোম্পানীর পরিচালক  মোশাররফ হোসেন জানান, চট্টগ্রাম চায়ের অকশন মার্কেটে বিদেশ থেকে চা আমদানি বেড়ে যাওয়ায় চা বোর্ড কতৃক নির্ধারিত মুল্যে চা ক্রয় করলে আমাদের লোকসান গুনতে হচ্ছে। তাই সরকারী মুল্যে চা পাতা ক্রয় করা সম্ভব হচ্ছেনা। কিন্তু অন্যান্যকোম্পানীগুলো সরকারী মুল্যে চা পাতা কিনছে কিভাবে এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান অন্যান্যকোম্পানীগুলোর নানা ধরনের ব্যবসা আছে। চায়ে লোকশান গুনলে তাদের কিছু যায় আসেনা। বাংলাদেশ চা বোর্ডের উর্ধ্বতন উন্নয়ন কমর্কতা সহিদুল্লাহ জানান কম্পানি দুইটিকে সরকারী মুল্যে চা পাতা ক্রয় করার জন্য বলা হয়েছে। বর্তমানে, ক্ষুদ্র চা চাষীরা জেলায় অবস্থিত সকল চা কারখানায় সবুজ চা পাতা সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে। এবং শেষে একটি মিছিল পঞ্চগড়-তেতুঁলীয়া মহাসড়কে প্রদর্ক্ষীণ করে।