মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পদ্মায় লঞ্চডুবিতে নিহত ৪৮

পদ্মায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে শতাধিক যাত্রী নিয়ে ডুবে গেছে এমভি মোস্তফা নামের একটি লঞ্চ। সারবাহী একটি কার্গোর ধাক্কায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

পাটুরিয়া ঘাট থেকে দৌলতদিয়া যাওয়ার পথে মাঝ পদ্মায় লঞ্চডুবির ঘটনায় এ পর্যন্ত ৬ শিশুসহ ৪৮ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ওই রুটের অপর এক লঞ্চের সারেং জানান, রোববার দুপুর ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

 

দৌলতদিয়া শাখার বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ জানায়, পাটুরিয়া থেকে দৌলতদিয়ার উদ্দেশে ছেড়ে আসা এমভি মোস্তফা নামের একটি যাত্রীবাহী লঞ্চকে দুপুর ১২টার দিকে ধাক্কা দেয় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি সারবাহী কার্গো। এতে লঞ্চটি ডুবে যায়।

 

তবে লঞ্চে কত জন যাত্রী ছিল, তা এখনো নিশ্চিত করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, এতে দুই শতাধিক যাত্রী ছিল।

 

পরবর্তীতে ডুবুরি ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে ডুবে যাওয়া লঞ্চের যাত্রীদের উদ্ধাদের চেষ্টা চালাচ্ছে।

 

ডুবে যাওয়া লঞ্চের যাত্রী গোয়ালন্দ কৃষি অফিসের হেড ক্লার্ক তফসির জানান, লঞ্চটি ডুবে যাওয়ার সময় তিনিসহ কেবিনের বাইরে থাকা যাত্রীদের অনেকে সাঁতরে অন্য লঞ্চ ও ট্রলারে উঠতে সক্ষম হন। তবে লঞ্চের ভেতরে থাকা শতাধিক যাত্রী বের হতে পারেনি। এদের মধ্যে অনেকের মৃত্যুর আশঙ্কা করছেন তিনি।

 

তফসির আরো জানান, মানিকগঞ্জের হরিরামপুর এলাকা থেকে আসা একটি কার্গো লঞ্চটির মাঝখানে ধাক্কা দেয়। এতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে লঞ্চটি উল্টে ডুবে গেছে।

এদিকে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক মো. রফিকুল ইসলাম খান ও পুলিশ সুপার তাপতুন নাসরিন ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন।

পাটুরিয়া ঘাট শাখার বিআইডব্লিউটিএর যুগ্ম পরিচালক মো. শাহজাহান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে বিআইডব্লিউটিএ-এর কর্মীরা উদ্ধার কাজ শুরু করে।

Spread the love