রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুরে ধর্ষণের শিকার শিশু কন্যাকে ঢাকা মেডিকেলে স্থানান্তর

দিনাজপুর প্রতিনিধি॥ দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ধর্ষণের শিকার পাঁচ বছর বয়সী শিশু কন্যা কে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ধর্ষনের ছয় দিন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার পর সোমবার রাতে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।

জানা গেছে, পার্বতীপুর উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের জমিরহাট এলাকার তকেয়াপাড়া শিশু কন্যা গত মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বাড়ীর বাইরে খেলতে গেলে রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হয়। খুজাখুজি করে তাকে না পেয়ে ঐ রাতেই পার্বতীপুর মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়রী করেন তার পিতা। পরদিন বুধবার ভোর ৬ টায় নিখোজ শিশু কন্যাকে বাড়ীর পার্শ্ববতী হলদী ক্ষেত থেকে রক্তাত্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের পরেই তাকে প্রথমে ল্যাম্প হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে আশংকা জনক অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করা হয়।

এই ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে ধর্ষিতার পিতা সুবল চন্দ্র দাস বাদী হয়ে একই গ্রামের জহির উদ্দিনের পুত্র সাইফুল ইসলাম (৪২) ও আফজাল হোনের কবিরাজ (৪৮) কে আসামী করে পার্বতীপুর মডেল থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১৬ তারিখ ২০/১০/১৬ ইং।

ধর্ষণের শিকার শিশু কন্যা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় ৬দিন অবস্থা অবনতি হলে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় নিতে বলে। অর্থাভাবে তার পিতা পুজাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেই রাখে।

গত সোমবার জাষ্টিস ফর ওমান নামের একটি প্রতিষ্টানের সহযোগিতায়  রাতে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।

মামলার বাদী ধর্ষিতার পিতা সুবল চন্দ্র দাস ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে গত সোমবার রাত সাড়ে ৭ টার দিকে পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ দিনাজপুর শহরেরগোর-এ শহীদ বড় ময়দান থেকে ধর্ষন মামলার প্রধান আসামী সাইফুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পার্বতীপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাহমুদুল আলম আসামী গ্রেফতারের বিষয়টি সংবাদ প্রতিক্ষণকে নিশ্চিত করেছেন।

Spread the love