সোমবার ২২ এপ্রিল ২০২৪ ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুরে মহিলা মাদ্রাসার নৈশ্য প্রহরী হত্যাকান্ড । ৪ মাসেও ক্লু উদঘাটন হয়নি

একরামুল হক বেলাল,পার্বতীপুর (দিনাজপুর)থেকেঃ

পার্বতীপুরে ফাযিল মাদ্রাসার নৈশ্য প্রহরী মনসুর আলী হত্যাকান্ড ঘটনার ৪ মাস অতিবাহিত হলেও পুলিশ কোন ক্লু উদঘাটন করতে পারেনি। নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী জানতে পারেনি হত্যাকান্ডের মুল রহস্য।

 

পার্বতীপুর শহরের বাস টারমিনাল সংলগ্ন তালীমুন্নেছা (মহিলা) ফাযিল মাদ্রাসার গত ২৩ সেপ্টেম্বর ’১৪ রাতে নৈশ্য প্রহরী রামপুর ইউনিয়নের শিঙ্গীমারী দরিখামার গ্রামের মৃত্যু মছর উদ্দিরের পুত্র মনসুর আলী(৫০) কে বা কারা তাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করে মাদ্রাসার ক্লাস রুমের ছাদের বাঁশে দড়ি দিয়ে ঝুলিয়ে রাখে। পরদিন সকাল ৯টার দিকে একই এলাকার শফিউদ্দিনের কন্যা ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী আদুরী প্রথমে তাকে দেখতে পায়। সে খবর দিলে লোকজন ছুটে আসে। পার্বতীপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাহামুদুল আলম, উপজেলা নির্বাহী আফিসার রাহেনুল ইসলাম সকাল ১০ টার দিকে ঘটনাস্থল পরির্দশন শেষে লাশ নামানো হয়।

 

মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল খাদেমুল ইসলাম নুরী বলেন, নৈশ্য প্রহরী মনসুর আলী খুবেই ভাল লোক ছিলেন। তার ৫ ছেলে ও ৫ কন্যা রয়েছে। দুবৃত্তরা তাকে হত্যা করলেও মাদ্রাসার কোন কিছু নেয়নি।

 

পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মর্গে প্রেরন করে। এ হত্যাকান্ড ঘটনা ৪ মাস অতিবাহিত হলেও পুলিশ হত্যাকান্ডের কোন ক্লু উদঘাটন করতে পারেনি। নিহতের পরিবারসহ এলাকাবাসী আজও জানতে পারেনি নৈশ্য প্রহরী মনসুর আলী হত্যাকান্ড ঘটনার মুল রহস্য।

Spread the love