রবিবার ১৪ অগাস্ট ২০২২ ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুরে মামীর সাথে পল্লী চিকিৎসকের পরকীয়া ঘটনায় এলাকায় তোলপাড়

একরামুল হক বেলাল, পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

দিনাজপুরে পার্বতীপুরে নারী লোভী এক পল্লী চিকিৎসক নানার শ্রাদ্ধ খেতে এসে মামী শাশুড়ীর সাথে অবৈধ মেলামেশার সময় স্বামীর হাতে ধরা পড়ে। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

গত বুধবার সন্ধ্যায় বিরামপুর উপজেলার মোকন্দপুর ইউনিয়নের উরমা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে মেয়ের পিতা বাদী হয়ে শনিবার রাতে পার্বতীপুর মডেল থানায় একটি মামলা করেছেন।

জানা গেছে, পার্বতীপুর উপজেলার মন্মথপুর ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামের মৃত রত্নেশ্বরে র ছেলে পল্লী চিকিৎসক বিপুল সরকারের (৩৮), সঙ্গে একই গ্রামের লালমন রায়ের মেয়ে শিল্পী রানী (১৯)’র সঙ্গে দীর্ঘ দিন ধরে স্বামী-স্ত্রীর মত পরকীয়া সম্পর্ক চলে আসছিল। এর মধ্যে প্রায় দু’মাস পূর্বে পল্লী চিকিৎসক বিপুল ঘটকালি করে শিল্পীর সাথে বিরামপুর উপজেলার মোকন্দপুর ইউনিয়নের উরুমা গ্রামে তার মামা শশুর নীশিকান্তর সঙ্গে বিয়ে দেয়।

সম্প্রতি নীশিকান্তরের বাবা মারা যায়। গত বুধবার ছিল তার শ্রাদ্ধের দিন। এদিন শ্রাদ্ধ খেতে গিয়ে বিপুল সুযোগ বুঝে শিল্পীকে একাকি পেয়ে তার শোবার ঘরে ঢুকে পড়ে। এরি এক পর্যায়ে স্বামী নীশিকান্ত ঘরে ঢুকলে তাদের ঘনিষ্ট মেলামেশা অস্থায় দেখতে পায়। এ নিয়ে হৈচৈ শুরু হলে পর দিন বৃহস্পতিবার গ্রামের লোকজন এসে এলাকার চেয়ারম্যানসহ গন্যমান্য ব্যক্তিদের ডেকে এনে মা বাবার উপস্থিতিতে শিল্পী কে সিদুঁর পরিয়ে ও মালা বদল করে দু’জনের বিয়ে দেয়। এঘটনার পর লম্পট পল্লী চিকিৎসক একা তার নিজ গ্রাম পার্বতীপরের নারায়নপুর ফিরে এলেও শিল্পীর ব্যাপারে কিছু জানাতে অস্বীকার করে। বিভিন্ন আত্মীয় স্বজনের বাড়ীতে খোজ করেও শিল্পীর কোন সন্ধান না পাওয়ায় তার বাবা লালমন বাদী হয়ে পল্লী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে পার্বতীপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

এব্যাপারে পার্বতীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল আলম আজ রবিবার বিকেলে মুঠোফোনে বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তবে ঘটনাটি বিরামপুর উপজেলায় ঘটায় এখনও মামলা রেকর্ড করা হয়নি। ঘটনা তদন্ত পরিদর্শক (তদন্ত) আঃ রাজ্জাক কে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email