রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুরে স্ত্রী’র পর স্বামী চলন্ত ট্রেনে ঝাপ দিয়ে আত্নহত্যা

একরামুল হক বেলাল,পার্বতীপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি : পার্বতীপু েস্ত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যার পর স্বামী ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্নহত্যা করলেন৷ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বড় হরিপুর হিন্দুপাড়া গ্রামে৷

জানা যায়, পার্বতীপুর উপজেলার চন্ডিপুর ইউপির বড় হরিপুর হিন্দুপাড়া গ্রামের খোকারামের পুত্র বিশ্বনাথ কাঞ্চন(২৫) এর ৬ মাসের গর্ভবর্তী স্ত্রী লতা রানী(১৮) গতকাল সাকালে সোমবার রহস্য জনক কারনে নিজ গলায় ফাঁস দেয়৷ বাড়ীর লোকজন টেরপেয়ে তাকে ফাঁস থেকে নামিয়ে প্রথমে স্থানীয় ল্যাম্ব হাসপাতালে ভর্তি করে৷ পরে দুপুরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর মৃত্যু বরন করে৷ পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশকে অবগত না করেই রাতেই নিহত লতা রানীর পিতা মাতার দেয়া যৌতুক ১ লাখ ১০ হাজার টাকা ১০ দিনের মধ্যে ফেরত দিবে মর্মে আপশ মিমাংশা হয়৷ রাতারাতি লতার মৃত্যু দেহ নিয়ে তার পিতা মাতা পঞ্চগড়ে চলে যায়৷ এ ঘটনার পর লতার স্বামী বিশ্বনাথ কাঞ্চন আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে পার্বতীপুর উপজেলার মন্মথপুর রেল ষ্টেশনে দিনাজপুর থেকে পার্বতীপুর গামী কমিউটার ট্রেনের নিচে ঝাাঁপদিয়ে আত্নহত্যা করেছে৷

 

Spread the love