শুক্রবার ১ মার্চ ২০২৪ ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুরে হত্যা মামলার আসামী ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ

ভ্রাম্যমান প্রতিনিধিঃ

পার্বতীপুরে রবিউল ইসলাম বাবলুর হত্যা মামলার ওয়েরেন্টভহক্ত হুকুমের আসামী আব্দুল কাদিরকে আটক অতঃপর পুলিশ কর্তৃক ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টায় পার্বর্তীপর রেল ষ্টেশন সংলগ্ন শহীদ মিনার এলাকায় বাবলু হত্যা মামলার আসামী আব্দুল কাদিরকে রাস্তায় পেয়ে মামলার বাদীনি শিউলী বেগম ও তার পরিবারের লোকজন তাকে আটক করে। কাদির মারপিটের ভয়ে স্থানীয় জাসদ অফিসে আশ্রয় নিলে রাস্তায় ব্যাপক হট্টগোল সৃষ্টি করে বাদীনি ও তার লোকজন। এ হট্টগোলের সসময় শতশত কৌতুহলী লোকজনের ভীড় জমে জাসদ অফিসের সামনে । এসময় সংবাদ পেয়ে জিআরপি থানা ও পার্বতীপুর মডেল থানার পুলিশ জাসদ অফিসে আসেন। কোর্টের ওয়ারেন্ট রয়েছে বলে আব্দুল কাদিরকে গ্রেফতারের কথা বললে জাসদ অফিসে আসা সকল পুলিশ সদস্য রহস্যজনক কারনে তাকে গ্রেফতার না করেই দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন। এদিকে প্রায এক ঘন্টা জাসদ অফিসে অবরুদ্ধ থাকার পর কৌশলে আব্দুল কাদির সেখান থেকে সটকে পড়ে বাদীনির রোষানল থেকে রক্ষা পান।

এদিকে বাবলু হত্যার ওয়ারেন্টভহক্ত হুকুমের আসামীকে ধরে দেয়ার পরেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার না করায় উপস্থিত শত শত লোক বিস্ময় প্রকাশ করেছেন।

বাদী শিউলি বেগম জানায়, গত ২০১৩ সালের ২১ সেপ্টেম্বর পার্বতীপুর ডিগ্রী কলেজ মোড়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে নৃশংসভাবে খুন করে তার স্বামী রবিউল ইসলাম বাবলুকে। এ ঘটনায় তিনি গত ১৩ সালের ২২ সেপ্টেম্বর বাদী হয়ে পার্বতীপুর মডেল থানায় মামলা করে। মামলায় হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করলে বিজ্ঞ বিচারপতি ২ মাসের মধ্যে আব্দুল কাদিরকে নিমণ আদালতে আত্নসমর্পন করে জামিনের আবেদন করতে নির্দেশ দেন। কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নিমণ আদালতে হাজির না হওয়ায় দিনাজপুর জুডিশিয়াল মেজিষ্ট্রেট আদালত গত ১৪ সালের ১২ নভেম্বর তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন। কিন্তু রহস্যজনক কারনে পার্বতীপুর মডেল থানার পুলিশ তাকে গ্রেফতার না করায় বাদিনী ও তার লোকজন নিজেরাই আসামীকে আটক করে পুলিশকে গ্রেফতারের জন্য বলেন। পুলিশ সদস্য রহস্যজনক কারনে তাকে গ্রেফতার না করেই দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন।

Spread the love