রবিবার ২১ এপ্রিল ২০২৪ ৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুর থানার চালচিত্র জনতা অপরাধীদের ধরে পুলিশে দেয়-আর পুলিশ তাদের ছেড়ে দেয়

একরামুল হক বেলাল,পার্বতীপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি : সমাজের অপারাধীদের পুলিশের হাতে তুলে দেন সাধারণ জনগণ। আর পুলিশ তাদেরকে স্বার্থের কারনে নাকি ছেড়ে দেয়। আবার পুলিশ বলেছে উভয়ের মধ্যে আপোষ করলে পুলিশের কি করার আছে। এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে পার্বতীপুর উপজেলায়। ঘটনাটি গতকাল দুপুরে পার্বতীপুর মডেল থানায়। দেড় লাখ টাকায় রফাদফা।

স্থানীয় জনগণ ও পুলিশ সূত্র জানায়, গত ২৮ জানুয়ারী রাতে উপজেলার মোস্তফাপুর ইউপির সাবেক মহিলা সদস্যার বাড়ী থেকে অসামাজিক কার্যকলাপের সাথে জড়িত বলে আটক করে ২ সন্তানের জনক কুতুবপুর গ্রামের কাঞ্চি হাজীর পুত্র আসাদুজ্জামান আসাদ (৩৫) নামের সাথে এক সন্তানের জননী (২৮)কে আটক করে। পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ এসআই স্বপন কুমার চৌধুরী খবর পেয়ে সেই বাড়ী থেকে আসাদ ও ওই জননীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে রাত সাড়ে ১২টার দিকে। পরদিন মোস্তফাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান মতিন’র মধ্যস্থতায় ও পুলিশের আইনি পেচের কথা বলে দেড় লাখ টাকায় বিনিময়ে বিষয়টি নিষ্পত্তি করে। এব্যাপারে চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান মতিন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি এ প্রশ্নের উত্তর দেয়া থেকে নীরব থাকেন। এদিকে, মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই স্বপন কুমার চৌধুরীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কি করবো তাদের দু’পক্ষের মধ্যে আপোষ মিমাংসা হলে পুলিশের কি করার আছে।

Spread the love